অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের জন্য নগদ অর্থ ও ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে এগিয়ে আসলেন ডিসি

68

আলমগীর মানিক

রাঙামাটি শহরের রিজার্ভমুখ এলাকায় মাথার গোঁজার একমাত্র ঠাই বসতঘরগুলো আগুনে পুড়ে সম্পূর্ন নিঃস্ব হয়ে যাওয়া ১৪টি পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রীসহ নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করেছেন জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ। শনিবার সকাল নয়টার সময় অগ্নি দূর্ঘটনার পর ঘন্টার মধ্যেই ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে প্রতি পরিবারকে নগদ তিন হাজার টাকাসহ ১৫ কেজি চাউল, কেজি আলু, এক লিটার তেল, পেয়াঁজ, ডালসহ খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট বিতরণ করেন

বেলা দুইটার সময় জেলা প্রশাসক নিজেই ঘটনাস্থলে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্থদের হাতে এই সহায়তা তুলে দেন। এসময় জেলা প্রশাসনের এনডিসি উত্তম কুমার দাশ, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ মশিউর রহমান, প্রতিবন্ধি বিদ্যালয়ের পরিচালক নুরুল আবছার, স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর পুলক দেসহ গণমাধ্যমকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন

জেলা প্রশাসক জানান, এমনিতেই করোনা পরিস্থিতিতে মানুষজন কর্মহীন অবস্থায় ঘরেই অবস্থান করে পবিত্র রমজান পালন করছে। প্রচন্ড রোদ্রজ্জল দিনে আগুনে পুড়ে নিঃস্ব হয়ে যাওয়া এই পরিবারগুলো যাতে খাদ্য কষ্টে না থাকে এবং তাৎক্ষনিকভাবে নিজেদের অতিপ্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র কিনতে পারে সেলক্ষ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাৎক্ষনিকভাবে নগদ অর্থসহ খাদ্যসামগ্রী প্রদান করা হয়েছে। তিনি জানন, এদের ব্যাপারে আমাদের লোকজন খোঁজখবর রাখছে তাদের প্রয়োজন হলে আরো ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হবে

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর পুলক দে জানিয়েছেন, আগুনে পুড়ে যাওয়া পরিবারগুলোর সকলেই দিনমজুর। কাজ কর্মহীন তারা ঘরবন্দি অবস্থায় ছিলো। আমি পৌরসভার পক্ষ থেকে গতকালই প্রতিটি পরিবারকে ১০কেজি চাউল দিয়েছিলাম। কিন্তু শনিবার সকালের আগুনে সকলেরই ঘরে রক্ষিত সেই চাউলগুলোসহ সবকিছু পুড়ে গেছে দেখলাম। তাদের জন্য পৌরসভার পক্ষ থেকের সহায়তা করা হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি