খাগড়াছড়ির আট উপজেলা পরিষদে বিজয়ী হলেন যারা

116

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

রামগড়ে নৌকা প্রতিকের বিশ^ প্রদীপ ত্রিপুরা, লক্ষ¥ীছড়িতে নৌকার বাবুল চৌধুরী, দীঘিনালায় নৌকার সভাপতি হাজী মো: কাশেম, মাটিরাঙ্গায় নৌকার মো: রফিকুল ইসলাম, মহালছড়িতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (জেএসএ এমএন লারমা)’র বিমল কান্তি চাকমা বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। এদিকে পানছড়িতে ইউপিডিএফ’র প্রার্থী শান্তি জীবন চাকমা এগিয়ে রয়েছে বলে জানা গেছে।

এর আগে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় খাগড়াছড়ি সদর উপজেলায় নৌকার মো: শানে আলম,মানিকছড়িতে নৌকার মো: জয়নাল আবেদীন বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়। ১৮ই মার্চ পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সকাল ৮টা থেকে ভোট চলে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। বিচ্ছিন্ন কিছু ঘটনা কেন্দ্র করে কিছু গোলযোগ হলেও ছাড়া ৮ উপজেলায় শেষ পর্যন্ত ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়।

এবার খাগড়াছড়িতে আওয়ামী লীগ, পাহাড়ি আঞ্চলিক সংগঠনের সদস্যসহ ৮ উপজেলায় মোট ৭৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এরমধ্যে চেয়ারম্যান পদে ২১, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৮ এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২৯ জন। তবে খাগড়াছড়ি সদর ও মানিকছড়িতে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী না থাকায় আওয়ামী লীগের দুই প্রার্থী বিনা প্রতিন্দ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

প্রশাসন ১৭৫টি কেন্দ্রের মধ্যে ১৫৭টি কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত নেয়া হয় অতিরিক্ত সর্তকতা। মাঠে ছিল  সেনাবাহিনী, র‌্যাব, পুলিশ ও বিজিবি। এরমধ্যে লক্ষীছড়ি, দীঘিনালা ও পানছড়ি উপজেলায় দুইটি আঞ্চলিক দলের প্রার্থী থাকায় অতিরিক্ত আরো ১ প্লাটুন করে বিজিবি মোতায়েন ছিল। ৩টি দুর্গম কেন্দ্রে নির্বাচনী মালামাল পরিবহনসহ নির্বাচনী কাজে ব্যবহার করা হয়েছে হেলিকপ্টার।