অবশেষে রাঙামাটি শহরের ফুটপাত উদ্ধারে অভিযানে নেমেছে পৌরসভা

337

॥ আলমগীর মানিক ॥
রাঙামাটি শহরের বাজারগুলোর প্রায় সর্বত্রই ফুটপাত দখল করে মালামাল রেখে পথচারিদের দূর্ভোগ সৃষ্টির বিষয়টি অনেক রেওয়াজে পরিণত হয়েছে এক শ্রেণীর অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ি গোষ্ঠীর। কান্ডজ্ঞানহীন এই ধরনের অপরিকল্পিত অবৈধ দখলদারদের কারনে আগত পর্যটকদের কাছে ক্রমান্বয়েই সৌন্দর্যহীনতার পাশাপাশি ঝনজালের নগরী হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠছে রাঙামাটি শহর। প্রথম শ্রেণীর পৌরসভা এলাকার এই ধরনের অপরিচ্ছন্নতা ও যত্রতত্র গাড়ি পার্কিংয়ের বিরুদ্ধে এবার রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে মাঠে নেমেছে রাঙামাটি পৌরসভা কর্তৃপক্ষ।

পৌরসভার প্রধান নির্বাহী ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ ইসলাম উদ্দিনের নেতৃত্বে রোববার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শহরের কলেজ গেইট এলাকা থেকে হোটেল সুফিয়া প্রাঙ্গন পর্যন্ত ফুটপাত দখল করে ব্যবসা পরিচালনাকারীদের বিরুদ্ধে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় জেলা প্রশাসনের পেশকার নজরুল ইসলামসহ পৌরসভা ও জেলা প্রশাসনের বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারিগণ অভিযান পরিচালনায় সহযোগিতা করেন।

উক্ত অভিযানের নেতৃত্বদানকারি পৌরসভার প্রধান নির্বাহী মোঃ ইসলাম উদ্দিন জানান, রাঙামাটি শহর প্রথম শ্রেণীর পৌরসভাধীন অন্যতম পর্যটন শহর হিসেবে পরিচিত। কিছু কিছু অসচেতন নাগরিকের খামখেয়ালীমূলক আচরনের কারনে পথচারি থেকে শুরু করে আগত পর্যটকগণ প্রচন্ড রকমের ভোগান্তিতে পড়ছে। বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই জেলা প্রশাসক স্যার ও পৌর মেয়র মহোদয় উভয়েই একমত হয়ে এসব অবৈধ দখল হয়ে যাওয়া ফুটপাত দখলমুক্তকরণসহ ফুটপাতে রাখা মালামাল জব্দে মোবাইল কোর্ট পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তারই ধারাবাহিকতায় রোববার থেকে শহরে কিছু কিছু স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে এবং ফুটপাত দখল করে বিভিন্ন সাইনবোর্ড,বিল বোর্ডসহ নানা ধরনের মালামাল জব্দ করে নিয়ে আসা হয়েছে। এখন থেকে রাঙামাটি শহরের পৌর এলাকাগুলোর সর্বত্রই ধারাবাহিকভাবে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে বলেও জানিয়েছেন পৌরসভার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইসলাম উদ্দিন।