আকবরকে সমর্থন দিয়ে প্রার্থীতা থেকে সরে দাঁড়ালেন অমর

412

p..2

স্টাফ রিপোর্টার, ২৬ ডিসেম্বর ২০১৫, দৈনিক রাঙামাটি : নির্বাচন থেকে সরে দাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছেন মেয়র প্রার্থী অমর। শুক্রবার সংবাদ সম্মেলনে তার সরে দাঁড়ানোর কথা জানিয়ে তিনি নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী আকবর হোসেন চৌধুরীর নৌকার পক্ষে কাজ করার ঘোষণা দেন। রাঙামাাটি জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের জেলা সভাপতি দীপংকর তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে অমর কুমার দে জানান, যৌবনের শুরু থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত হই। এরপর থেকে নানা চড়াই উৎরাই পেরিয়ে আমি এই দলটির রাজনীতি করে আসছি।

পাশাপাশি আমি সনাতন ধর্মের লোক হওয়ায় আমার স¤প্রদায় থেকেও আমাকে একটি গুরু দায়িত্ব দেওয়া হয়। সেটিও আমি সফলতার সঙ্গে পালন করে আসছি। সামাজিক বিভিন্ন কর্মকান্ড থেকে করতে গিয়ে আমার দল ক্ষমতায় আসার পর বিভিন্ন গুরুত্বপর্ণ পদে থাকা নিজের রাজনৈতিক সহকর্মীদের কাছে প্রায় সময় নানাবিদ জনগুরুত্বপূর্ণ কাজ নিয়ে আমি গিয়েছি। কিন্তু বারংবার আমি লাঞ্চনা-বঞ্চনার শিকার হয়েছি। আমাকে তারা শুধুমাত্র খালি হাতে ফিরিয়েছে তাই নয়, আমার সাথে বৈষম্যমূলক আচরনও করা হয়েছে দল থেকে। তাই মনের ভেতর সৃষ্টি হওয়া দীর্ঘদিনের ক্ষোভের বর্হিঃপ্রকাশ ঘটাতে গিয়ে আমি ২০১২ সালে দল থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।

এরপর থেকে নানা ধরনের বঞ্চনার শিকার হয়ে অবশেষে জনগণের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করার মানসে দলীয় সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে রাঙামাটি পৌরসভায় মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নামি। মূলতঃ আমি একজন চিরকুমার ব্যক্তি হওয়ায় সাধারণ মানুষের সেবায় নিজেকে পূর্ণদমে নিয়োজিত করা  সহজ। বর্তমানে দলের বিভিন্ন পর্যায় থেকে আমাকে বুঝানো হয় যে, দলের বৃৃহত্তর স্বার্থে আমি যেন নির্বাচন থেকে সরে আসি। এতেও আমি সরে না আসায় অবশেষে রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মূছা মাতব্বর আমার বাসায় যায় এবং আমাকে বিগত দিনের আচরনের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করে। এই ঘটনায় আমি খুবই বিব্রত হই। এই প্রেক্ষাপটে দলের বৃহত্তর স্বার্থে নিজেকে নির্বাচন থেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। বক্তব্যশেষে মেয়র প্রার্থী আকবর হোসেন চৌধুরীর সঙ্গে আলীঙ্গন করে নির্বাচনে তিনি তার প্রতি সমর্থন ব্যক্ত করেন। এ সময় নির্বাচন থেকে ইতিমধ্যে সরে দাঁড়ানো আওয়ামী লীগের অপর বিদ্রোহী প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবও উপস্থিত ছিলেন।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান