আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর কারনে পার্বত্য অঞ্চলের সামগ্রীক উন্নয়নে বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে

287

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সাবেক প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার বলেছেন, পার্বত্য অঞ্চলের বসবাসরত মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়নে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, যোগাযোগ, কৃষি উন্নয়নের পাশাপাশি প্রতিটি ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার জন্য বর্তমান সরকার ইতিমধ্যে সাড়ে ৮শত কোটি টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে।কিন্তু পার্বত্য অঞ্চলের সামগ্রীক উন্নয়নে প্রধান বাঁধা হয়ে দাড়িয়েছে আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলো।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার পাহাড়ের মানুষের প্রতি খুবই আন্তরিক তাই পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের কল্যাণে উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপন, আধুনিক পদ্ধতিতে কৃষিচাষ, যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নসহ বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকান্ড হাতে নিয়েছে এবং বাস্তবায়ন করছে। বছরের প্রথম দিনে ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীদের শিক্ষার্থীদের হাতে নিজস্ব আক্ষরিক ভাষায় বিনামূল্যে বই বিতরণ করেছে যা আর কোন সরকার করেনি।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের এ উন্নয়নের ধারাবাহিকতাকে অব্যাহৃত রাখতে এবং জননেত্রী প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করার জন্য সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি। তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ রাজনীতি করে জনগনের কল্যান ও দেশের উন্নয়নের জন্য। তাই সকল বাঁধা বিপত্তিকে কাটিয়ে আমাদের সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। আগামিতে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে আওয়ামীগ তথা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই।

সোমবার সকালে জুরাছড়ি অর্কোপল ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্লাব কাম কমিউনিটি সেন্টার প্রাঙ্গণে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ জুরাছড়ি উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের আয়োজনে ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগের সকল অংগসংগঠনের বার্ষিক বনভোজন উপলক্ষে আয়োজিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

জুরাছড়ি উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রিকো চাকমার সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা, জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কেরোল চাকমা, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক অভয় প্রকাশ চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য সুবীর কুমার চাকমা, জ্ঞানেন্দু বিকাশ চাকমা, জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি প্রবর্তক চাকমা, কাপ্তাই উপজেলার প্রাত্তন উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অংসু ছাাইন চৌধুরী, সদর উপজেলা আওয়ামীগ নেতা মিঠুন চাকমা, জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চারু বিকাশ চাকমা, জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান উপদেষ্ঠা বন বিহারী চাকমা, জুরাছড়ি উপজেলা পরিষদ এর সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রূপকুমার চাকমা, জুরাছড়ি হেডম্যান মায়ানন্দ চাকমা, সন্তোষ কুমার চাকমা’সহ আওয়ামীলীগ ও সকল অংগসংগঠনের নেতৃবৃন্দরা বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জুরাছড়ি উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক রপ্তদীপ চাকমা রকি

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলেন, প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ রক্ষার্থে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কাজ করে যাচ্ছে। ছাত্রলীগ বায়ান্নর ভাষা আন্দোলন, ৬দফা আন্দোলন ও মহান মুক্তিযুদ্ধে যে অবদান রেখেছে তা ইতিহাস সাক্ষি রয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে সমৃদ্ধশালী দেশ গঠনে ছাত্রলীগ কর্মীদের চলার আহ্বান জানান তিনি।

তিনি পরিষদ হতে দূর্গম জুরাছড়ি উপজেলার মহিলাদের বিভিন্ন প্রশিক্ষনে প্রক্ষিক্ষিত হয়ে আত্বনির্ভরশীল হয়ে গড়ে তুলার জন্য আগামী অর্থবছরে ৫লক্ষ টাকা বরাদ্ধ প্রদানের প্রতিশ্রুতি প্রদান করেন।

সভা শেষে অতিথিরা কেক কেটে ছাত্রলীগের ৬৯তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করেন এবং পরে জুরাছড়ি উপজেলাধীন রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদ অর্থায়নে (২০১৫-২০১৭) অর্কোপল ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক ক্লাব কাম কমিউনিটি সেন্টারের উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠান শেষে স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করা হয়।

এর আগে অতিথিরা জুরাছড়ি সুবলং শাখা বনহিার পরির্দশন করেন
আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলগুলোর কারনে পার্বত্য অঞ্চলের সামগ্রীক উন্নয়নে বাঁধাগ্রস্থ হচ্ছে