উন্নয়নের কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছাতে সিভিল রেজিস্ট্রেশন গুরুত্বপূর্ণ – স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

123

৭ জুন ২০২৩, বুধলবার- ঢাকা ব্যুরো অফিস, দৈনিক রাঙামাটি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, যেকোনো জাতির কাঙ্ক্ষিত উন্নয়নের লক্ষ্যে পৌঁছাতে হলে সিভিল রেজিস্ট্রেশন বা জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন অতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা বা এসডিজি- ২০৩০ বাস্তবায়নের জন্য অগ্রগতি, চ্যালেঞ্জ, সুযোগ এবং কর্মপরিকল্পনা ত্বরান্বিতকরণের জন্য সিভিল রেজিস্ট্রেশন ভাইটাল স্ট্যাটিসটিক্স বা সিআরভিএস বেশ কার্যকর উল্লেখ করে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, সেজন্য বাংলাদেশের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের জন্য আইন প্রণয়ন করা হয়েছে। তিনি আজ ঢাকার একটি অভিজাত হোটেলে দক্ষিণ এশিয়ার সিভিল রেজিস্ট্রেশন প্রফেশনালদের ৩য় আঞ্চলিক কনফারেন্স উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রী পরিষদ সচিব মোঃ মাহবুব হোসেন, ইউনিসেফ বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ সেলডন ইয়েট।এতে সভাপতিত্ব করেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইবরাহিম।

মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন, দ্রুত নগরায়নের ফলে বাংলাদেশের শহরে কত মানুষ বসবাস করছে সে পরিসংখ্যান আমাদের নীতি প্রণয়নের সাহায্য করে। তাছাড়া বর্তমানে বাংলাদেশে কর্মক্ষেত্রে নারীদের অংশগ্রহণও অবদান সারা বিশ্বে স্বীকৃত জানিয়ে তিনি বলেন, সিভিল রেজিস্ট্রেশন নারী-পুরুষের নানা ধরনের তথ্য সংরক্ষণও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

এ সময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী ইউনিসেফ ও ইউএন এসক্যাপকে দক্ষিণ এশিয়ার জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনসহ সিআরভিএসকে শক্তিশালী করায় ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এ ধরনের উদ্যোগ আঞ্চলিক উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখার সাথে সাথে বিভিন্ন গবেষণায় ভিত্তি হিসেবে কাজ করবে।

এ সম্মেলনের মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের তথ্য পর্যালোচনা, সমস্যা ও সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হবে আশা প্রকাশ করে মন্ত্রী বলেন, এর ফলে অন্তর্ভুক্তিমূলক সিভিল রেজিস্ট্রেশন এবং অত্যাবশ্যক পরিসংখ্যানসহ আরো টেকসই ভবিষ্যৎ গড়ে তোলার সুযোগ সৃষ্টি হবে।

সিভিল রেজিস্ট্রেশন ভাইটাল স্ট্যাটিসটিক্স বা সিআরভিএস সঠিক নীতি নির্ধারণের অতি গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে মন্ত্রী পরিষদ সচিব মোঃ মাহবুব হোসেন বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলি থেকে অংশগ্রহণকারী সিভিল রেজিস্ট্রারগণ নিজেদের মধ্যে অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে সমৃদ্ধ হবেন এবং তাদের মধ্যে সম্পর্কের গভীরতা বৃদ্ধি পাবে যা আঞ্চলিক যোগাযোগের বন্ধনকে আরো সমৃদ্ধ করবে।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মুহম্মদ ইবরাহিম বলেন, এ সম্মেলন দক্ষিণ এশিয়ায় সিআরভিএসকে শক্তিশালী করার জন্য অদ্যাবধি প্রচেষ্টার মূল্যায়ন, সাফল্য বা ভালো অনুশীলন, শেখা-শিখন বিষয়গুলি তুলে ধরা, প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ও কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ, লগ্নী বা বিনিয়োগগুলোকে চিহ্নিত করার সুযোগ সৃষ্টি করে দেবে।

দক্ষিণ এশিয়ার সিভিল রেজিস্ট্রেশন প্রফেশনাল বা সিআরএইট হল একটি পেশাদার নেটওয়ার্ক যারা আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, মালদ্বীপ, নেপাল,পাকিস্তান এবং শ্রীলংকার নাগরিক নিবন্ধনের সাথে কাজ করে। দক্ষিণ এশিয়ার জাতিসংঘের শিশু তহবিলের আঞ্চলিক কার্যালয় (ইউনিসেফ রোসা) এবং জাতিসংঘের এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অর্থনৈতিক ও সামাজিক কমিশন (টঘঊঝঈঅচ) গ্রুপটিকে সহায়তা করে। এই নেটওয়ার্ক টি ২০১৮ সালে গঠিত হয় এবং এরপরে দুটি সভা আয়োজিত হয়। ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য এবারের আঞ্চলিক সম্মেলনের উদ্দেশ্য হচ্ছে এই দশকের অগ্রগতি পর্যালোচনা করা।

বার্তা প্রেরক- মোঃ হেমায়েত আকবর টিপু
তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা- স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়

আপলোড ও সম্পাদনা- শামীমুল আহসান
ঢাকা ব্যুরো প্রধান, দৈনিক রাঙামাটি