কর্মক্ষম জনগোষ্ঠিকে দক্ষ মানব জনসম্পদে পরিণত করতে কাজ করছে ‘সিপ’

314

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (ঝঊওচ) এসইআপি’র প্রকল্প পরিচালক ( যুগ্ম সচিব) ড. সানোয়ার জাহান ভূঁইয়া বলেন- বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সম্পদ হলো- বিশাল কর্মক্ষম জনগোষ্ঠি। বাংলাদেশকে একটি সমৃদ্ধশালী ও সম্পদশালী দেশে রূপান্তর করতে হলে কর্মক্ষম জনগোষ্ঠিকে জনসম্পদে পরিণত করতে হবে। কারণ সরকার জনসম্পদকে জনশক্তিতে রূপন্তর করতে বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে গত এক যুগ ধরে চেষ্টা চালাচ্ছে।

সোমবার সকালে জেলা প্রশাসনের আয়োজনে প্রশাসনের মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত স্কিলস ফর এমপ্লয়মেন্ট ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রাম (ঝঊওচ) এসইআপি’র সাথে জেলার ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠি প্রতিনিধিদের অবহিতকরণ কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

যুগ্ম সচিব ড. সানোয়ার জাহান ভূঁইয়া আরও বলেন- সরকারের গৃহীত পদক্ষেপের কারণে গত এক যুগ ধরে দেশের অর্থনীতি ধারাবাহিক ভাবে প্রবৃদ্ধি অর্জন করে চলেছে। ২০৪১সালের মধ্যে বাংলাদেশকে একটি সমৃদ্বি ও সম্পদশালী পরিণত করতে সরকার যে পদক্ষেপগুলো নিয়েছে তা বাস্তবায়ন করতে হলে আমাদের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ধারাকে আরও বেগবান করতে হবে।

যুগ্ম সচিব বলেন- বাংলাদেশের অর্থনীতিতে রেমিট্যান্সের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রবাসীদের পাঠানো এ অর্থ দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে অন্যতম অনুঘটক হিসেবে বিবেচিত। কারণ বিদেশে দক্ষতাসম্পন্ন কর্মীর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। দক্ষতা অর্জন করে বিদেশে গেলে উপযুক্ত কাজের কাজের পাশাপাশি ভাল বেতনের নিশ্চয়তা মেলে। তাই বিদেশে ভাল কাজ ও উন্নত বেতনের জন্য অবশ্যই দক্ষকর্মী পাঠানোর ব্যবস্থা জরুরী।

যুগ্ম সচিব আরও বলেন- ২০১৪সাল থেকে ঝঊওচ কার্যক্রম শুরু করেছে। এ প্রকল্পের অধীন ২০২৪সালের মধ্যে ৮লাখ ৪০হাজার দক্ষ জনশক্তি গড়ে তোলা হবে। বর্তমানে সাড়ে ৫লাখ ব্যাক্ত প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। সফল ভাবে প্রশিক্ষণ সম্পন্নকারীদের মধ্যে ৬০শতাংশ কর্মসংস্থানের সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। এ কার্যক্রমে ৩০শতাংশ নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়াও সুবিধাবঞ্চিত মানুষকে প্রশিক্ষণ চলাকালে ভাতার পাশাপাশি কমপক্ষে ১লক্ষ জনগণকে বিশেষ বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে।

রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন-(ঝঊওচ) এর কনসালটেন্ট জেন্ডার এন্ড সোস্যাল ডেভেলপমেন্ট স্পেশালিস্ট ( যুগ্ম সচিব ) মাহবুবা ফারজানা। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মামুন মিয়া।