কাউখালিতে ভূমি রেজিঃ শুনানি শুরু হওয়ায় খুশী জণগণ

332

॥ মোঃওমর ফারুক ॥

জেলার কাউখালী উপজেলার দির্ঘদিন যাবত জমি কেনা বেচা বন্ধ ছিল। গত কয়েক দিন ধরে নতুন সহকারী কমিশনার( ভুমি) যোগদান করে জমি কেনা বেচার রেজিষ্ট্রেশন শুনানির কায্যকরম শুরু করায় জনমনে সন্তোষ ফিরে এসেছে।

উপজেলায় গত কিছু দিন আগে নতুন সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ জামশেদ ুল আলম যোগ দান করেন। যোগ দান করে তিনি কাউখালিতে দিঘ দিন ধরে বন্ধ থাকা জমি কেনা বেচার রেজিষ্ট্রেশন শুনানির শুরু করেন। এতে করে উপজেলার মানুষের মধ্যে আনন্দ দেখা যায়। গত বৃহসপতি বার (১২আগসট/২১) তারিখে উপজেলা সহকারী কমিশনার( ভুমি) উপজেলার মোট১০টি জমির বেচা কেনার শুনানী করেন।অনেক জমি ক্রেতা বিক্রেতা কে দেখা যায়।উপজেলা সহকারি কমিশনার( ভুমি) অফিসের বারানদায় ভিড় করতে।সেদিন মোট ১০জনের জমি কেনা বেচার রেজিষ্ট্রেশন শুনানি করা হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানান।

কথা হয় উপজেলার পোয়াপাড়ার বাসিন্দা মোঃ ফরিদ, শামুক ছড়ির সুজাই মারমা, সুগারমিলের আনোয়ার হোসেন এবং বেতবুনিয়ার বাসিন্দা মোঃ শাহালমের সাথে তারা সভাই খুব খুশি কারন দিঘ ১ বছরের মতো এই জমি কেনা বেচা বন্ধ ছিল কারণ করোনার কারনে তা ছাড়া কাউখালিতে কোন সহকারী কমিশনার (ভুমি) এসিল্যানড ছিলেন না। যার ফলে কাউখালী উপজেলার বিভিন্ন এলাকার যেমন উপজেলা সদর, বেতবুনিয়া, ঘাগড়া, কলমপতি,ফটিকছড়ি সহ বিভিন্ন এলাকার মানুষ জন দিঘদিন যাবত তাদের পরোয়জনে জমি কেনা বেচা বন্ধ থাকার কারণে আথিকভাবে কতিগরসথ হয় বলে জানা যায়।

কিন্তু দিঘদিনের এই সমস্যার সমাধান করলেন বতমান উপজেলা নিবাহী অফিসার নাজমুন আরা সুলতানা। তিনি কাউখালিতে যোগদানের পর এই সমস্যার সমাধান করলেন। নতুন সহকারী কমিশনার (ভুমি) যোগদান করায় উপজেলা বাসির দিনের জমি কেনা বেচার সমস্যা টি সমাদান হয়েছে বলে কাউখালী উপজেলার সংশ্লিষ্ট মহল মনে করেন।