কাপ্তাইয়ে ইউপি সদস্য সজিব হত্যার বিচারের দাবীতে মানববন্ধন

345

॥ অর্ণব মল্লিক, কাপ্তাই ॥

ইউপি সদস্য সজিবুর রহমান হত্যার বিচারের দাবীতে কাপ্তাইয়ের সর্বস্থরের জনগণ মানববন্ধন করেছে বুধবার (৩ নভেম্বর) বিকালে। কাপ্তাই নতুন বাজার সড়কের দু’পাশে শতশত নারী পুরুষ প্রায় দেড় ঘন্টা দাঁড়িয়ে ইউপি সদস্য হত্যাকারীর বিচার দাবি করে এই মানববন্ধনে অংশ নেয়। আগামী ৭দিনের মধ্যে জড়িত খুনিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয় মানববন্ধন থেকে। ওইদিন বিকেলে বেলা বাড়ার সাথে সাথে শতশত নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ ও শিশুরাও জনপ্রিয় ইউপি সদস্য সজিব হত্যাকারী খুনিদের ফাঁসি চেয়ে সড়কের দু’পাশে লাইনে দাঁড়িয়ে মানববন্ধন করে।

ইউপি সদস্য সজিবুর রহমানের হত্যার বিচার চেয়ে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন রাঙামাটি জেলা পরিষদ সদস্য ও কাপ্তাই উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি অংসুই ছাইন চৌধুরী, কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি এম নুর উদ্দীন সুমন, কাপ্তাই নতুন বাজার বণিক কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক একরামুল হক, কাপ্তাই উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হোসেন ও নিহত সজিবুর রহমানের বড় মেয়ে নুসরাত জাহান প্রমূখ।

বক্তরা বলেন, এলাকার একদল চিহ্নিত মাদক কারবারি ও বহু মামলা হামলার আসামিরা গত ২৬ অক্টোবর কাপ্তাই ৪ননং ইউনিয়ন পরিষদের ৫নং ওয়ার্ডের জনপ্রিয় ইউপি সদস্য সজিবুর রহমান সজিবকে রাত প্রায় সাড়ে ১১ টায় নির্মমভাবে হত্যা করে পালিয়ে যায়। এ হত্যার ঘটনা প্রশাসন এড়িয়ে যেতে পারেনা। হত্যার ঘটনাটি প্রশাসনের সামনেই ঘটেছে বলে বক্তারা উল্লেখ করেন। আগামী ৭ দিনের মধ্য হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য আইন প্রয়োগকারীদের প্রতি দাবি জানানো হয় মানববন্ধন থেকে।

নিহত সজিবুর রহমান সজিব রাঙামাটি জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য ও কাপ্তাই উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক সদস্য ছিলো। হত্যায় জড়িত নামীয় ৩২ জন এবং অজ্ঞাত ১৫ জনের বিরুদ্ধে কাপ্তাই থানায় একটি মামলা করেছে নিহতের বোন দুধ নাহার বেগম। ইতিমধ্য কাপ্তাই থানা পুলিশ ৮ জনকে আটক করে রাঙামাটি আদালতে চালান করেছে। অন্যান্য আসামিরা পলাতক রয়েছে। মানববন্ধনে সর্বস্তরের লোকজন উপস্থিত হয়ে এই হত্যার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করেন। এনিয়ে এলাকার সর্বস্তরের জনগনের মাঝে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।