কাপ্তাইয়ে কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম আতঙ্কে এলাকাবাসী

327

॥ কাপ্তাই প্রতিনিধি ॥
কাপ্তাইয়ে বেড়েছে কিশোর গ্যাংয়ের দৌরাত্ম্য। একের পর এক ঘটছে চুরি, ছিনতাই, মারামারির ঘটনা। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার (১লা অক্টবর) রাত ১২টায় বিদ্যু না থাকায় কাপ্তাইয়ের শিল্প এলাকায় ব্যবসায়ী জলিল থেকে ৭০হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় কিশোর গ্যাংয়ের একটি গ্রুপ। এসব ঘটনায় আতঙ্ক বেড়েছে এলাকায়। প্রশাসনিক কঠোরতা কম থাকায় এমন ঘটনার সৃষ্টি হয়েছে বলে অভিমত ভুক্তভোগীদের।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কাপ্তাইয়ের নতুন বাজার, শিল্প এলাকা, জাকির হোসেন স’মিল, ওয়াগ্গার শিলছড়ি, বড়ইছড়ি, চন্দ্রঘোনার কলাবাগান, চেকপোষ্ট, বারঘোনিয়া সহ কয়েকটি এলাকায় বেড়েছে কিশোর গ্যাংয়ের অপতৎপরতা। স্কুল-কলেজ পড়ুয়া ১৬বছর বয়সী কোমলমতি শিক্ষার্থীরা মাদকাশক্ত হয়ে ঘটাচ্ছে চুরি, ছিনতাই, মারামারি সহ নানান অপরাধমূলক কর্মকান্ড। গত ৩-৪মাসে বেড়েছে এমন অপরাধের চিত্র।

ভুক্তভোগী কাপ্তাইয়ের নতুন বাজারের মুরগী ব্যবসায়ী মো. জলিল জানান, গত বৃহস্পতিবার (১লা অক্টোবার) রাত ১২টায় দোকান বন্ধ করে নিজ বাসা মুরগীর টিলা এলাকায় ফিরার পথে কিশোর গ্যাংয়ের একটি গ্রুপ মুখে কাপড় প্যাচিয়ে কাপ্তাই উচ্চ বিদ্যালয় পার্শ্ববর্তী ব্রিজের ওপর আমাকে আটক করে ব্যাগে থাকা ৭০ টাকা ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। অন্যদিকে সম্প্রতি কাপ্তাইয়ের নতুন বাজার এলাকার ২ দোকান থেকে ৯০ হাজার টাকা চুরি, শিল্প এলাকাস্থ সজল টেলিকমের মালিককে মারধর, কেপিএমে বারঘোনিয়ায় দুই গ্রুপে মারামারির ঘটনা ঘটে।

কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান প্রকৌশলী আব্দুল লতিফ জানান, এই বিষয়ে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় বক্তব্য রাখি। প্রশাসনের কঠোরতা কম থাকায় বেড়েছে কিশোর গ্যাংয়ের দৌড়াত্ম্য। স্কুল কলেজ পড়ুয়া কোমলমতি কিশোররা ঝুঁকছে মাদকের দিকে।
চন্দ্রঘোনা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম চৌধুরী বেবি জানান, কাপ্তাইয়ে কর্মসংস্থানের অভাবে দারিদ্রতা বৃদ্ধি পাওয়ায় চুরি ছিনতাইয়ে ঝুঁকছে অনেকেই। আমরা সামাজিকভাবে চেষ্টা করছি এমন ঘটনা যেন পূনঃবৃত্তি না ঘটে।