কাপ্তাইয়ে দুরারোগ্য ব্যধির কবলে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে এক দম্পতি

243

॥ অর্ণব মল্লিক ॥

মানুষ মানুষের জন্য জীবন জীবনের জন্য একটু সহানুভূতি কি মানুষ পেতে পারেনা। কাপ্তাই উপজেলার শিলছড়িতে স্বামীর লিভার সিরোসিস স্ত্রীর দু’টি কিডনী নষ্ট হওয়ায় জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষনে ওই দম্পতি। বর্তমানে অর্থের অভাবে বিনা চিকিৎসায় বাড়িতে দু’জনে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

ঘর, সংসার, ব্যবসা, সম্পত্তি, সুখ সব ছিলো। কিন্তু দেড় বছর যাবৎ মরণব্যাধি লিভার সিরোসিসসহ নানান রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে মোস্তফা মিয়া (৩৮) ও তার স্ত্রী নাছিমা বেগম (৩০)। এরা কাপ্তাইয়ের ৫নং ওয়াগ্গা ইউনিয়ন, ৯নং ওয়ার্ডের শিলছড়িস্থ বেলুয়াছড়া বসবাস করে। মোস্তফা মিয়া চিকিৎসার জন্য সব হারিয়ে এখন অন্যের ভাড়া করা ঘরে বসবাস করছে। নিজের চিকিৎসা করার পাশাপাশি মরার উপর খাড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে নিজ স্ত্রী নাছিমা বেগমের দুরারোগ্য ব্যাধি। দীর্ঘ ৭ মাস যাবৎ তার স্ত্রীর দু’টি কিডনী সম্পূর্ণ নষ্ট হয়ে গেছে।

এদিকে স্ত্রীর চিকিৎসা করতে দু’দিন পর পর চট্টগ্রামে ডাইলোসিস করতে ১২/১৫ হাজার টাকা খরচ হয়। প্রতিদিন মোস্তফার এক হাজার ও মাসে তিনটি ইনজেকশন বাবদ খরচ হয় তিন হাজার এবং প্রতি মাসে স্বামী-স্ত্রীর খরচ লাগে ৪০/৫০ হাজার টাকা। এর মধ্যে মোস্তফার গলায় ৫টি রিং বসানো হয়েছে। সংসারে বৃদ্ধ মা, এস,এস,সি পরীক্ষার্থী মেয়ে, ৪ভাই ৩ বোনের সংসারের এদের দু’জনের চিকিৎসা বাবদ সহায়-সম্বল সব হারিয়ে এখন পথে বসেছে। মোস্তফা মিয়া চট্টগ্রামের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মো. শাহাদাত হোসেন ও স্ত্রী নাসিমা বেগম চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ সহকারী অধ্যাপক ডাক্তার এম এস হায়দার রশ্নীর চিকিৎসা ও পরামর্শ নিচ্ছেন ।

ইতিমধ্যে মোস্তফার গত কয়েকদিন যাবত মুখ ও মল পথে রক্ত ঝরছে। প্রতিনিধিকে অঝোর কান্না বিজড়িত কন্ঠে মোস্তফা জানান আমার স্ত্রীকে বাঁচাতে সমাজের বিত্তবান ও সর্বস্তরের লোকজনের সাহায্য সহযোগিতা চাই। এদিকে স্ত্রী নাছিমা বেগম জবাবে তার স্বামীকে বাঁচাতে সর্বস্তরের লোকজনের নিকট মানবিক সাহায্যর আবেদন জানান। পঁয়ষট্টি ঊর্ধ্ব মোস্তফার বৃদ্ধ মা হোসনেয়ারা বেগম জানান ছেলে ও তার স্ত্রী চিকিৎসা বাবদ সব হারিয়ে এখন পথে বসেছে। কখনো খায় কখনো না খেয়ে রাত্রি যাপন করে। তার কান্নায় আকাশ ভারি হয়ে উঠেছে। ছেলে-বৌ এর চিকিৎসার জন্য সমাজ তথা প্রবাসী, এনজিও, বিত্তবানসহ সর্বস্তরের লোকজনের নিকট সাহায্যের আবেদন জানান।

সাহায্য ও যোগাযোগ: মো. মোস্তফা মিয়া: ০১৮৫-১৩৯৪০০২ (বিকাশ)। নাছিমা বেগম হিসাব নং-৫৪০৩১০১০১১১৩৮ সোনালি ব্যাংক লিঃ বড়ইছড়ি শাখা কাপ্তাই, রাঙামাটি।