কাপ্তাইয়ে ৭ মন্ডপে দুর্গাপুজা এবার হবে না নৌ শোভাযাত্রা

43

॥ কাপ্তাই প্রতিনিধি ॥
সনাতনী সম্প্রদায়ের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ‘দুর্গাপুজা’। কাপ্তাইয়ে দুর্গাপুজার বিশেষ আয়োজন হলো বিজয়া নৌ র‌্যালী। প্রতি বছর কর্ণফুলী নদীতে হাজার হাজার মানুষের অংশগ্রহণে জমকালো আয়োজনে নৌ শোভাযাত্রার মাধ্যমে বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বিসর্জন করেন এ সম্প্রদায়ের মানুষেরা।

কিন্তু এ বছর করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে কর্ণফুলী নদীতে ঐতিহ্যবাহী বিজয়া নৌ র‌্যালী হচ্ছে না বলে জানিয়েছেন কাপ্তাই উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়তোষ ধর পিন্টু। তিনি বলেন, অনেক বিধিনিষেধ মেনে এ বছর শুধুমাত্র সাত্ত্বিক ভাবেই পুজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
কাপ্তাই উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি দীপক কুমার ভট্টাচার্য জানান, এ বছর কাপ্তাইয়ের রাইখালী শ্রী শ্রী ত্রিপুরা সুন্দরী কালী মন্দির, কেপিএম কর্ণফুলী প্রকল্প শ্রী শ্রী হরি মন্দির, কাপ্তাইয়ের লগগেইট জয়কালী মন্দির, চন্দ্রঘোনা মিশন এলাকার আদি নারায়ণ বৈদান্তিক গীতা পুজা মন্ডপ ও শ্রী শ্রী দক্ষিণেশ্বর সিদ্ধেশ্বরী কালি মন্দির, শিলছড়ি দুর্গা মন্দির এবং কাপ্তাই ব্রিকফিল্ড কর্ণফুলী সার্বজনিন মাতৃমন্দির পুজা মন্ডপে দুর্গাপুজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

তবে আগামী সোমবার (২৬ই অক্টোবর) স্ব স্ব মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দের উদ্যোগে মন্দিরের কাছাকাছি কর্ণফুলী নদীর পানিতে প্রতিমা বিসর্জন করবেন।

কাপ্তাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুনতাসির জাহান সকলকে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা মেনে পুজা উদযাপন করার অনুরোধ জানান। কাপ্তাই থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নাসির উদ্দিন এবং চন্দ্রঘোনা থানা অফিসার ইনচার্জ মো. ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, সনাতনী সম্প্রদায়ের বৃহৎত্তম এই ধর্মীয় উৎসব যাতে সুষ্ঠভাবে সম্পাদন হতে পারে সেইজন্য পুলিশের পক্ষ হতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।