কেমন দিন কাটাচ্ছেন রাঙামাটির ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা

468

॥ ইকবাল হোসেন ॥
নোভেল করোনা ভাইরাস থেকে বাংলাদের মানুষকে রক্ষা করতে সরকার গত ২৬শে মার্চ থেকে সারাদেশে অঘোষিত লকডাউন ঘোষনা করেছে। স্থানীয় প্রশাসন ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনির সার্বিক প্রচেষ্টার ফলে দেশের মানুষকে ঘরে রাখতে সক্ষম হয়েছে। পার্বত্য জেলা রাঙামাটিতেও এর ব্যতিক্রম ঘটেনি। কিন্তু এই অঘোষিত লকডাউনের ফলে ২৪ দিন ধরে দোকানপাট বন্ধ থাকায় বিপাকে পড়েছে জেলার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা।

এদিকে পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীর ১বছরের পৌরকর মওকুফের ঘোষনা ও মানবিক দিক বিবেচনা করে অনেক বাড়িওয়ালা বাড়িভাড়া মওকুফ করলেও। এসব ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের দোকান ভাড়া তো মওকুফ হয়নি উল্টো দোকানের মালিক দোকান ভাড়ার জন্য বিভিন্নভাবে চাপ প্রয়োগ করে যাচ্ছে।

এবিষয়ে শহরের বেশ কয়েকজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর সাথে কথা বললে জানা যায় তাদের দুঃখ-দুর্দশার কথা। তারা জানায় প্রায় ২৪ দিন দিন ধরে দোকান বন্ধ। পুঁজিপাটা যা ছিলো তাও প্রায় শেষ, দোকানের মালিকও ভাড়ার জন্য চাপ দিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে আমরা কই যাব কি করবো কিছুই বুঝতে পারছিনা। সামনে রমজান মাস এসময় প্রতিবছর আমাদের ভালো ব্যবসা হতো কিন্তু এবার হয়তো দোকান বন্ধ রাখতে হবে।

এখন জেলা প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা যদি আমাদের পাশে না দাঁড়ায় তাহলে পরিবারের সবাইকে নিয়ে না খেয়ে মরতে হবে।

তাই প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরদের প্রতি আমাদের একটাই আবেদন আমাদের জন্য কিছু করেন নাহয় আমাদের না খেয়ে মরতে হবে।