খাগড়াছড়িতে সমঅধিকার আন্দোলনের যৌথসভা অনুষ্ঠিত

180

পার্বত্যবাসীর অধিকার আদায়ের আন্দোলনকে বেগবান করার লক্ষ্যে পার্বত্য চট্টগ্রাম সম-অধিকার আন্দোলনের এক যৌথসভা অনিুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৯ জুন) খাগড়াছড়িতে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সমঅধিকার আন্দোলন ঢাকা কমিটির আহ্বানে অনুষ্ঠিত সভায় খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি ও বান্দরবান জেলার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় পার্বত্যবাসীর অধিকার আদায়ের আন্দোলনকে বেগবান করার লক্ষে সংগঠনকে সুসংগঠিত করার বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন নেতৃবন্দ। পরে সভায় তিনটি প্রস্তাব পাশ করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ও পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াদুদ ভূইয়া; সভাপতিত্ব করেন বাঙামাটি জেলা সম-অধিকার আন্দোলনের সভাপতি মোঃ ইউনুছ।

সভায় উত্থাপিত প্রস্তাবগুলি হলো ঃ (১) পাহাড়ে ব্যাংক ঋণ প্রদানে অচলাবস্থা- পার্বত্য জেলা সমূহে প্রশাসন কর্তৃক বাজার ফান্ডের ভূমি বেচাকেনা বন্ধ রাখা ও ওই সকল ভূমি বন্দক রেখে ব্যাংক কার্যক্রম বন্ধরাখার বিষয়ে। এতে দাবি করা হয়, ব্যাংক ঋণ বিষয়ে এই সিদ্ধান্তহীনতার কারণে পার্বত্যবাসী, গৃহ নির্মাণ ও ব্যবসা বাণিজ্যে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। অবিলম্বে এই অঘোষিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়ে সভার পক্ষ হতে জোর দাবি জানানো হয়। (২) পার্বত্য তিন জেলায় আয়কর বৈষম্য ঃ সভায় বলা হয়, আমরা উদ্বোগের সাথে লক্ষ করছি যে, দীর্ঘদিন যাবত পাহাড়ের ব্যবসায়ীদের মধ্যে সম্প্রদায় ভিত্তিক আয়কর বৈষম্য বিরাজমান রয়েছে। এতে পাহাড়ের বাঙালি ব্যবসায়ী ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বিলুপ্ত হওয়ায়ার পথে। তাই সভার পক্ষ হতে ‘দ্রুত পার্বত্য নাগরিকদের আয়কর বৈষম্য দূর করে সকল মানুষের আয়কর প্রদানে সমতা আনার জোর দাবী জানানো হয়। (৩) সভা থেকে হিল ভিডিপি ও হিল আনসারদে সমান সুযোগ সুবিধা ও মর্যাদা প্রদানের দাবি জানানো হয়।

সভায় অন্যন্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা কমিটির সভাপতি হাবিবুর রহমান, খাগড়াছড়ি জেলা কমিটির সভাপতি মোশারফ হোসেন, রাঙামাটি জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কামাল, এজাজ নবী রেজা, সেলিম উদ্দিন বাহারী, আমান উল্লা, মোঃ ইসমাইল ও আনোয়ার আজিম প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি (প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে স্বাক্ষর করেন ঢাকা কমিটির সভাপতি হাবিবুর রহমান)