খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার বেকায়দায় পরিক্ষার্থীরা

94

॥ খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি ॥

আগামী ২৫ আগষ্ট অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে বহুল প্রত্যাশিত খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের অধিনস্থ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সরকারি শিক্ষক নিয়োগ পরিক্ষা। তবে দীর্ঘ দিন পর অনুষ্ঠিতব্য সরকারি শিক্ষক নিযোগ পরিক্ষায় এবার বেকায়দায় পড়েছে নিবন্ধন পরিক্ষার্থীরা।

এ নিয়ে এবার নিবন্ধন পরিক্ষায় অংশ গ্রহণকারীরা ঝড় তুলেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজ বুকে। মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের মধ্যেও। অনেকে সময়সূচী পরিবর্তনের দাবী জানিয়ে নানা স্ট্যাটাস দিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তবে নির্ধারিত খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের অধিনস্থ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সরকারি শিক্ষক নিয়োগ পরিক্ষার সূচী অপরিবর্তন হবে না বলে জানিয়েছেন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইজবুকে দেওয়া কিছু স্ট্যাটাস তুলে ধরা হলো: এমডি কামরুল হোসেন (আওয়ার কেএইচডিসি) নামে পার্বত্য জেলা পরিষদের ফেইজবুক ফেইজে ট্যাগ করে লিখেছেন:  আগামী ২৫ আগস্ট ২০১৭ইং খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদে অধিনস্থ প্রাইমারি সহকারী শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। কিন্তু,এবার যারা পরীক্ষা অংশগ্রহণ করবে তাদের বেশিরভাগই স্নাতক পাশ (নারী প্রার্থী ছাডা)। যেহেতু প্রায়  সকল প্রার্থী স্নাতক পাশ,সেহেতু একই দিনে (২৫ আগস্ট সকাল ও বিকেল) প্রার্থীদের বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করবে। তাই,মাননীয় জেলা পরিষদ চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আমরা সবাই অনুরোধ করছি,অনুষ্ঠিতব্য ২৫ তারিখের পরীক্ষাটি স্থগিত করে আমাদের বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় (এনটিআরসিএ) অংশগ্রহনের সুযোগ প্রদান করলে আমরা কৃতজ্ঞ হবো।

কমেন্ট এ লিখেছেন ইমাম হোসেন : জেলা পরিষদ এতটুকু খবর রাখে না। যেখানে এক সাথে সারা বাংলাদেশে (এনটিআরসিএ) পরীক্ষা হবে সেটার ব্যাপারে সতর্ক হওয়া উচিত ছিল। “মংসাথোয়াই মারমা লিখেছেন: আগামী রোবববার ১৩ তারিখে সবাই জেলা পরিষদের সামনে ২৫ তারিখের নিয়োগ পরীক্ষার স্থগিত করার দাবিতে একটা মানববন্ধনের তারিখ ঘোষনা করা হোক। ভাই কিছু একটা উপায় বের করো, তা না হলে পরীক্ষা দিতে না পারার আফসোস থেকে যাবে। আমি প্রস্তুত আছি। মোবাইল- ০১৫৫৬৪৫৮৩৭৬। “বিপ্লব চাকমা লিখেছেন: আপনাদের মাথা ঠিক আছে। জেলা পরিষদ এত মাথা ব্যাথা করে না।

ভিন্ন আরেকটি স্ট্যাস্টাস লেখা হয়:নয়ন ত্রিপুরা (আওয়ার কেএইচডিসি) নামে পার্বত্য জেলা পরিষদের ফেইজবুক ফেইজে ট্যাগ করে লিখেছেন: আগামী ২৫শে আগস্ট রোজ শুক্রবার সারা দেশব্যাপী বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ঐ পরীক্ষায় খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার হাজার হাজার পরীক্ষাথীর্র অংশগ্রহণ করবে। আর অনেক পরীক্ষাথী আছে যাঁরা দুটি পরীক্ষায় আবেদন করেছে, যা আমি নিজেই। এজন্য জেলা পরিষদের নিয়োগ কমিটির নিকট বিনীত আবেদন যে, সকলের মঙ্গলের কথা চিন্তা করে ২৫ তারিখের পরীক্ষাটা পরবর্তী শুক্রবার বা যেকোনো সুবিধাজনক দিনে নেওয়ার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা গেল।

এ বিষয় নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি অধ্যক্ষ সমির দত্ত বলেন, নিববন্ধন পরিক্ষাটি সারা দেশে নির্ধারিত সময়ে অনুষ্ঠিত হবে। একই দিন খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদের আওতাধীন সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরিক্ষার সময় নির্ধারণ করায় অনেক পরিক্ষার্থী এ পরিক্ষা থেকে বঞ্চিত হবে। তাই বিষয়টি বিবেচনা করে সিধান্ত গ্রহণ করে পুণরায় নির্ধারণ করা গেলে সকল পরিক্ষার্থীই এই পরিক্ষায় অংশ গ্রহণের সুযোগ পেত বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এদিকে খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মো: জাহেদুল আলম বলেন, নিবন্ধন পরিক্ষার সময় বিবেচনা করে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ নিয়োগ পরিক্ষা প্রস্তুতি কমিটি সময় নির্ধারণ করলে কোন ধরনের জটিলতার সৃষ্টি হতো না। তবে সকল পরিক্ষার্থীর  কথা বিবেচনা করলে এখনো সময় পরিবর্তন সম্ভব।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও পরিষদের সদস্য এবং শিক্ষা বিভাগের আহবায়ক মংক্যচিং চৌধুরী বলেন, বিষয়টি শুনেছি। তবে সময় পরিবর্তন বা এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বলতে পারবেন। তবে এর আগে সময় পরিবর্তন হওয়া নিয়ে বিতর্ক হয়েছে। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার ব্যাপারটা চেয়ারম্যান জানেন।