চিকিৎসকদের মাঝে মানবিক চেতনা ও দায়িত্ববোধ জাগ্রত হোক : রাঙামাটি জেলাপ্রশাসক

423

P...3-1

স্টাফ রিপোর্টার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৫, দৈনিক রাঙামাটি : চিকিৎসকদের মাঝে মানবিক চেতনা ও দায়িত্ববোধ জাগ্রত না হলে আমাদের দেশে স্বাস্থ্যসেবার মান বাড়ানো কঠিন হয়ে পড়বে। সব ডাক্তার হয়তো সমান মানসিকতার নন, কিন্তু অনেকের মাঝেই নিজ দায়িত্বের প্রতি দায়বদ্ধতা না থাকায় অনেক সময় জরুরী স্বাস্থ্য সেবাও অনিশ্চিত হয়ে পড়ে। রাঙামাটি জেলাপ্রশাসক মোঃ আরেফিন সাংবাদিকদের প্রশিক্ষণে এমন মন্তব্য করে বলেন, এমনিতেই তৃতীয় বিশ্বের দেশ হিসেবে আমাদের সামর্থের সীমাবদ্ধতা রয়েছে। তার মাঝেও সরকার চেষ্টা চালিয়ে যায় সবটুকু দিয়ে হলেও যেন জনগণ ন্যুনতম সুবিধাটুকু পায়। এর ফল হিসেবেই প্রসূতি ও শিশুস্বাস্থ্যসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের সূচক বিশ্বে সুনাম অর্জন করেছে। তিনি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, সাংবাদিকরা সমাজের চোখ, তারা অসঙ্গতিগুলো তুলে আনবে এবং আগামী দিনের জন্য সঠিক পথের দিশা দেবে এটাই সবার প্রত্যাশা।

রাঙামাটিতে সাংবাদিকদের নিয়ে ‘সার্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা’ বিষয়ের উপর অনুষ্ঠিত কর্মশালার সমাপনী ও সনদ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলাপ্রশাসক এসব কথা বলেন। পিআইবির পরিচালক (অধ্যয়ন ও প্রশিক্ষণ) মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেনের সভাপতিত্বে সমাপনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙামাটি সদর উপজেরা পরিষদের চেয়ারম্যান অরুণ কান্তি চাকমা। পিআইবির সিনিয়র প্রশিক্ষক রাফিজা রহমানের সঞ্চালনায় সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে এবং রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াৎ হোসেন রুবেল।

রোববার থেকে রাঙামাটিতে সাংবাদিকদের নিয়ে যুগপৎভাবে দু’টি প্রশিক্ষণ কোর্স শুরু করে বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট (পিআইবি)। এর মধ্যে একটি হলো তিনব্যাপী সাংবাদিকতায় বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ কোর্স এবং অপরটি ‘ইউনিভার্সেল হেল্থ কাভারেজ’ বিষয়ে। রোববার সকালে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের সম্মেলন কক্ষ ‘মাইনী’ ও ‘কর্ণফুলী’তে পৃথকভাবে এই দু’টি প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু হয়। গতকাল ছিল ‘সার্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা’ প্রশিক্ষণ কোর্সের সমাপনী দিন। দুই প্রুপে মোট ৭০ জন সাংবাদিক এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করছেন। এর মধ্যে সিনিয়র সাংবাদিকদের জন্য ইউনিভার্সেল হেলথ কাভারেজ তথা ‘সার্বজনীন স্বাস্থ্য সুরক্ষা’ এর উপর এবং অন্য গ্রুপে বুনিয়াদী প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।

প্রশিক্ষণ কর্মশালার প্রথমদিনে প্রশিক্ষণের সূচনা করেন বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউট’র সিনিয়ন প্রশিক্ষক রাফিজা রহমান, মনিরুজ্জামান উজ্জল, ড. প্রদীপ কুমার পান্ডে ও পারভীন সুলতানা রাব্বী। এর আগে জেলা ও উপজেলা থেকে প্রিন্টং এবং ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিকগণ সকালে রেজিস্ট্রেশন করে তাদের প্রশিক্ষণের প্রথম ধাপ শুরু করেন। প্রথমদিন দুই গ্রুপে দেশের স্বাস্থ্যসেবা, স্বাস্থ্য সচেতনতা, সংবাদের সূচনা, সংবাদ পত্রের ভাষা, সাক্ষাৎকার কৌশলের দিক সমূহ নিয়ে আলোচনা করা হয়। এসময় জেলা ও উপজেলার সাংবাদিকগণ তাদের অজানা নানা দিক নিয়ে সরাসরি প্রশিক্ষকগণের সাথে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন। প্রশিক্ষক প্রদীপ কুমার এ সময় সাংবাদিকদের উদ্দেশ্য করে বলেন, সাংবাদিকদের শেষ শিক্ষা  বলে কিছু নেই। একজন সাংবাদিককে নানা বিষয় নিয়ে গবেষণা করতে হয়। একজন উকিলকে তার আইন পেশা কিংবা একজন ব্যাংকারকে তার ব্যাকিং সেক্টর ভালোভাবে জানলেই চলে। কিন্তু একজন সাংবাদিককে সকল বিষয়ে জ্ঞান আহরণ করতে হয়। বুণিয়াদি প্রশিক্ষণ কোর্সের সনদ বিতরণের মধ্য দিয়ে তিনদিনব্যপী এই প্রশিক্ষণ কোর্স আজ মঙ্গলবার শেষ হবে।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান