জঙ্গী-সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জাতীয় ভাবে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলতে নারী সমাজের আহ্বান

665

press club

 

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি, ১৪ জুলাই ২০১৬ : আজ বিকাল সাড়ে তিনটায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ৬৮টি নারী মানবাধিকার উন্নয়ন সংগঠনের সমন্নায়ে গঠিত ‘সামাজিক প্রতিরোধ কমিটির’ উদ্যোগে কালো ব্যাচ ধারনের মধ্য দিয়ে জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলুন- এই শ্লোগান নিয়ে মানববন্ধন সমাবেস অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে কালো ব্যাচ ধারনের মধ্য দিয়ে রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারী রেস্তোঁরায় নৃশংস হত্যাকান্ডসহ সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন হত্যাকান্ডের প্রতিবাদ করা হয়।

সভায় সংগঠনের সভাপতি আয়শা খানম বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে আমাদের দেশে যে নৃশংস হত্যাকান্ডগুলো ঘটে চলেছে তা অত্যন্ত ভয়াবহ। ১ জুলাই রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারী রেস্তোঁরায় যে সন্ত্রাসী হত্যাকান্ড সংগঠিত হয়েছে তা আমাদের গণতন্ত্রের উপর, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার উপর আঘাত হেনেছে। এই মানববন্ধন থেকে তিনি নারী সমাজের পক্ষ থেকে এবং নারী আন্দোলনের পক্ষ থেকে নিহতের প্রতি শ্রদ্ধা ও তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। তিনি বলেন, তরুণরা কোথায় যাচ্ছে, তারা কি ধরনের শিক্ষা গ্রহণ করছে, তাদের কারিকুলামে কি আছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া হয় কিনা, সঠিক সংস্কৃতি চর্চা হয় কিনা এই বিষয়গুলোর প্রতি রাষ্ট্রের দৃষ্টি দেয়া উচিৎ। তিনি আরো বলেন, এটা সমস্ত রাজনৈতিক ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আমাদের এই জঙ্গীবাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। সবশেষে তিনি বলেন, ঘটনা ঘটার পর নয় ঘটনা যেন ঘটতে না পারে তার জন্য আমাদের সকলকে প্রতিরোধ কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে।

সভায় বিশিষ্ট নারী অধিকার কর্মী সুলতানা কামাল বলেন, বাংলাদেশে গত কিছুদিন আগে যে ঘটনা ঘটে গিয়েছে তা অত্যন্ত নৃশংস এবং ভয়াবহ একটি ঘটনা। বাংলাদেশের জঙ্গীবাদ সাধারণ মানুষের উপর, মুক্তমনা মানুষের উপর হামলা চালাচ্ছে তারা থামিয়ে দিতে চচ্ছে এদেশের সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা। কিন্তু বাংলাদেশের মানুষকে উঠে দাঁড়িয়ে প্রমাণ করতে হবে এদেশ জঙ্গীবাদের স্থান হতে পারে না। কারণ এদেশর ভাষা আন্দোলনের ইতিহাস, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস আমাদের শিক্ষা দেয় প্রাণের বিনিময়ে আমরা স্বাধীনতা লাভ করেছি। তিনি আরো বলেন, মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের সরকার থাকার পরও ধর্মের নামে যারা অপতৎপরতা চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে আমাদের রুখে দাঁড়াতে হবে।

সমাবেশে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া কবীর,  অ্যাকশন এইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টার ফারাহ কবীর, অ্যাডাবের পরিচালক একেএম জসীমউদ্দিন, উইমেন ফর উইমেনের সভাপতি জাকিয়া কে হাসান, কর্মজীবী নারীর নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া রফিক বেবী, মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহিন আনাম,  জাতীয় নারী জোটের আহ্বায়ক আফরোজা হক রিনা, বাংলাদেশ ট্রেড ইয়নিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, গণস্বাক্ষরতা অভিযানের সাফিয়া খাতুন, আইন ও সালিশ কেন্দ্রের রওশন জাহান পারভীন, স্টেপস টুওয়ার্ডস ডেভলপমেন্টের চন্দন লাহিড়ী এবং হাঙ্গার প্রজেক্টের দিলীপ সরকার।

ঢাকা ব্যুরো অফিস, দৈনিক রাঙামাটি