জনগণের জন্য নিবেদিত প্রাণ এক ইউপি মেম্বার

499

॥ গোলাম মোস্তফা ॥

লংগদু উপজেলার ৫নং ভাসাইন্যাদম ইউনিয়নের মধ্যম ঘনমোড় ২নং ওয়ার্ডের মেম্বার মো. আমির হোসেন প্রায় ১৫ বছর ধরে দায়িত্ব পালন করছেন। এ দায়িত্ব পালনকালে বিভিন্নভাবে উক্ত এলাকায় বসবাসরত পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন।

ইউপি মেম্বার হিসেবে তিনি মধ্যম ঘনমোড় এলাকায়- ৭৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে শিলকাটাছড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ঘনমোড় বাজার পর্যন্ত সড়ক আরসিসি করণ, মধ্যম ঘনমোড় ও দক্ষিণ ঘনমোড় ২টি মসজিদ ১৮লক্ষ টাকা ব্যায়ে সংস্কার, ২লক্ষ টাকা ব্যয়ে কুসুমছড়ি ত্রিরতœ বৌদ্ধ বিহার সংস্কার, কমিউনিটি ক্লিনিক সড়ক নির্মাণ, ১ লক্ষ টাকা ব্যয়ে (এডিবি) ঘনমোড় সেনামৈত্রী নিন্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয় সংস্কার, ৭ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে বিদ্যালয়ের মাঠ নির্মাণ, বিজিবি ক্যাম্প সড়ক নির্মাণ, মধ্যম ঘনমোড়ে জেলা পরিষদের অর্থায়নে ব্রীজ নির্মাণ, নিজ ওয়ার্ডে ৪টি রিংওয়েল স্থাপন,সেলাই মেশিন বিতরণ।

এছাড়া করোনাকালীন সময়ে তিনি ২শতাধিক অসহায় পরিবারের মাঝে সরকারি ত্রাণ সহায়তা বিতরণ করেছেন। মধ্যম ঘনমোড় এলাকার প্রথম কমিনিউটি ক্লিনিকটি তার হাতেই স্থাপিত হয়েছে এবং তিনি এই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি কাবিখা প্রকল্পের মাধ্যমে এলাকার পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠির মাঝে ১০ লক্ষাধিক টাকার সোলার প্যানেল বিতরণ করেছেন। ইউপি সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি তিনি সামাজিক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দায়িত্ব পালন করছেন, তিনি ঘনমোড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব করেছেন। আমার বাড়ি আমার খামার কমিটির সভাপতি, এলাকার যুবক শ্রেণির ছেলে-মেয়েদের নিয়ে গঠিত ঘনমোড়’র একমাত্র সামাজিক সংগঠন আশার প্রদীপ সংগঠনের উপদেষ্টা হিসেবেও তিনি দায়িত্ব পালন করছেন।

এবিষয়ে ইউপি সদস্য মো.  আমির হোসেন বলেন, আমি এ নিয়ে ৩য় বারের মত ইউপি সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। দায়িত্ব পালন কালে আমার কাছে যত সরকারি/বেসরকারি সাহায্য সহযোগিতা এসেছে তা প্রকৃতপক্ষে যারা প্রাপ্য তাদের কাছে পৌঁছে দিয়েছি। তিনি আরো বলেন আমার ওয়ার্ডে অবকাঠামো উন্নয়নের বেশকিছু কাজ এখনও বাকি আছে। আগামীতে এলাকাবাসী যদি আমাকে নির্বাচিত করে আমি এলাকার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করবো।