জনস্থানকে নারীবান্ধব ও নিরাপদ করতে গণমাধ্যম কর্মীদের নিয়ে ‘জীবন’র কর্মশালা

318

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

জনস্থানকে নারীবান্ধব ও নিরাপদ করার মাধ্যমে নারীর পথচলায় করণীয় বিষয়ে রাঙামাটির গণমাধ্যমকর্মীদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। “নারীর চলার পথ নিরাপদ করতে আমি সচেষ্ট, আপনি?”স্লোগান নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় জনবহুল স্থান গুলোতে যাতে নারীরা নির্বিঘেœ চলাচল করতে পারে সেজন্য গণমাধ্যমে এই সম্পর্কিত প্রতিবেদন প্রকাশ করার আহবান জানানো হয়।

মঙ্গলবার (৮ মার্চ) সকালে আঞ্চলিক জনসংখ্যা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (আরপিটিাই) এর সম্মেলন কক্ষে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরআই) এর তারুণ্যের প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলা, ইউএনডিপি এর মানবাধিকার কর্মসূচী এবং জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের সহযোগিতায় স্বেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন জীবন ইয়ুথ ফাউন্ডেশন নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরােধে সচেতনতা মূলক ক্যাম্পেইনের আওতায় এই আলোচনা সভার আয়োজন করে। জীবন ইয়ুথ ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা সাজিদ-বিন-জাহিদ (মিকি) এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন তরুণদের প্রতিনিধি পলি ত্রিপুরা ও শুভ মন্ডল।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে রাঙামাটি প্রেস ক্লাবের সভাপতি সাখাওয়াৎ হোসেন রুবেল এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে রাঙামাটি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আল হক উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও রাঙামাটি জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার কর্মীরা উপস্থিত থেকে বক্তব্য রেখেছেন।

এসময় বক্তারা বলেন, জনস্থানসহ অন্যান্য জায়গায় নারী ও কন্যা শিশুদের উপর যৌন হয়রানি ও নানাবিধ যৌন সহিংসতা বাংলাদেশ এমনকি বিশ্বের অনেক সভ্য দেশেও নিত্য দিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কোভিড-১৯ মহামারীর সময়টাতে নারীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যেমও নানা ধরনের নিপীড়ন এবং যৌন হয়রানি বা সহিংসতার শিকার হচ্ছে। যা নারীর পূর্ণ সম্ভাবনা এবং জীবেনর সর্বক্ষেত্রে অংশগ্রহণকে বাধাগ্রহস্ত করেছে। নারীর অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রাকে রুখে দিতে এসব ঘটনাগুলোই প্রধান অন্তরায়।

আলোচনা সভা থেকে দেশের সকল স্থানে নারীদের চলাচলের স্থান সমূহকে নিরাপদ করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়।

নারী সহিংসতা শিকার হলে তাদের নাম ও পরিচয় এবং ছবি প্রকাশে রাষ্ট্রের নির্দেশনা অনুসরণ করার অনুরোধ জানানো হয়েছে। এছাড়াও পার্বত্য রাঙামাটির মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য যেন রক্ষা করা হয় এতে লেখনিতে তথ্য উপাত্ত তুলে ধরার ক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে গণমাধ্যমকর্মীদের বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়।