জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য পেলো রাঙামাটি

101

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সংরক্ষিত নারী সংসদ সদস্য পেলো রাঙামাটি পার্বত্য জেলা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদের জন্য ৩৩৩ রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি-বান্দরবান আসন থেকে নারী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন জ্বরতি তঞ্চঙ্গ্যা। তিনি রাঙামাটি সদর উপজেলাধীন ১নং জীবতলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।
বুধবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য তার দলের পক্ষ থেকে ৪৮ জন প্রার্থীর নাম চুড়ান্ত করেন। পরে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এর আগে বুধবার দুপুর ১২টায় গণভবনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মনোনীত নারী সংসদ সদস্য জ্বরতি তঞ্চঙ্গ্যা ছাড়াও রাঙামাটি আসন থেকে যারা দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন, এরা হলেন (প্রার্থীর নাম ও ফরম নম্বর) সাবেক সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম (চিনু), সভাপতি, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ (৯২২), শীলা রায়, সহসভাপতি, জেলা আওয়ামী লীগ (৯৭৭), টুকু তালুকদার, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগ, প্রস্তাবিত কমিটি (৩৪৬), সান্তনা চাকমা, সহ-সভাপতি, জেলা কৃষক লীগ (৩২১), দিনারা বেগম, সহ-সভাপতি, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ (৩৫৮), মোহিতা দেওয়ান, সাধারণ সম্পাদক, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ (৩৬০), মনোয়ারা আক্তার জাহান, মহিলা সম্পাদক, জেলা আওয়ামী লীগ, (৯৫৫) নোরী খীসা, সদস্য, বঙ্গবন্ধু আওয়ামী পরিষদ (৩১৫) এবং সুবর্না চাকমা, সদস্য, জেলা মহিলা আওয়ামী লীগ (১২১৬)।

এর আগে গত ৬ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়ে ৮ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনের দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি করে আওয়ামী লীগ। ৪৮টি আসনের বিপরীতে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন ১হাজার ৫৪৯জন নারী নেত্রী। এরপর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনোনয়ন প্রত্যাশীদের গণভবনে ডাকেন সাক্ষাতের জন্য।

সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) পদে দলীয় প্রার্থীর তালিকায় আরো আছেন- ঠাকুরগাঁওয়ের দ্রৌপদী দেবী আগরওয়ালা, নীলফামারীর মোছা, আশিকা সুলতানা, পঞ্চগড়ের রেজিয়া ইসলাম, জয়পুরহাটের রোকেয়া সুলতানা, নাটোরের কোহেলী কুদ্দুস, চাঁপাইনবাবগঞ্জের জারা জাবীন মাহবুব, খুলনার রুনু রেজা, বাগেরহাটের ফরিদা আক্তার বানু, বরগুনার মোসা. ফারজানা সুমি, ভোলার খালেদা বাহার বিউটি, পটুয়াখালীর নাজনীন নাহার রশীদ, নরসিংদীর ফরিদা ইয়াসমিন, ময়মনসিংহের উম্মি ফারজানা ছাত্তার, নেত্রকোণার নাদিয়া বিনতে আমিন, জয়পুরহাটের মাহফুজা সুলতানা, ঝিনাইদহের পারভীন জামান, কুমিল্লার আরমা দত্ত, সাতক্ষীরার লায়লা পারভীন, খুলনার বেগম মন্নুজান সুফিয়ান, গোপালগঞ্জের বেদৌরা আহমেদ সালাম, ঢাকার- শবনম জাহান, পারুল আক্তার, সাবেরা বেগম, নাহিদ ইজাহার খান, শাহিদা তারেখ দীপ্তি, অনিমা মুক্তি গমেজ, শেখ আনার কলি পুতুল, হাছিনা বারী চৌধুরী ও সানজিদা খানম, বরিশালের শাম্মী আহমেদ, মুন্সীগঞ্জের ফজিলাতুন নেসা, ফরিদপুরের ঝর্না হাসান, নরসিংদীর মাসুদা সিদ্দীক রোজী, টাঙ্গাইলের তারানা হালিম, টাঙ্গাইলের বেগম শামসুর নাহার, গাজীপুরের মেহের আফরোজ, টাঙ্গাইলের অপরাজিতা হক, গোপালগঞ্জের নাজমা আক্তার, সিলেটের রুমা চক্রবর্তী, লক্ষ্মীপুরের ফরিদুন্নাহার লাইলী, লক্ষ্মীপুরের আশ্রাফুন নেছা, নোয়াখালীর কানন আরা বেগম, চট্টগ্রামের শামীমা হারুন, নোয়াখালীর ফরিদা খানম, চট্টগ্রামের দিলোয়ারা ইউসুফ ও ওয়াসিকা আয়শা খান, রাঙামাটির জ্বরতী তঞ্চঙ্গ্যাঁ এবং রংপুরের মোছা. নাছিমা জামান (ববি)।