জাতীয় সংসদে পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে বে-আইনী অস্ত্র উদ্ধার ও চাঁদাবাজী বন্ধের জন্য প্রস্তাব পেশের আহ্বান সমঅধিকার আন্দোলনের

616

index

 

ঢাকা ব্যুরো অফিস, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬, দৈনিক রাঙামাটি(প্রেস বিজ্ঞপ্তি) : গত ১০ ফেব্র“য়ারী বুধবার, জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নের বিষয়ে সংবিধান সম্মত যুক্তিদেয়ায় পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলনের পক্ষ থেকে তাকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানানো হয়েছে। তাছাড়া, সন্তু লারমার পক্ষ নিয়ে জেএসএস নেতা উষাতন তালুকদার সংসদে পাহাড়ের বে-আইনী অস্ত্র উদ্ধার ও চাঁদাবাজী বন্ধের বিষয়ে প্রস্তাব না আনাতে সমঅধিকার নেতৃবৃন্দ তীব্র অসন্তোষ ও গভীর দুঃখ প্রকাশ করেন।

আজ এক যুক্ত বিবৃতিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলনের মহাসচিব মনিরুজ্জামান মনির, কেন্দ্রীয় নেতা মো. জাহাঙ্গীর কামাল, মো. ইউনুস কমিশনার, আ. কুদ্দুস চেয়ারম্যান, মুক্তিযোদ্ধা সেলিম আহমদ চৌধুরী এবং সমঅধিকার নারী আন্দোলনের নেত্রী শায়লা জেসমীন হেলেন, রওশন আরা সুরমা, রোজিনা বেগম ও জোছনা বেগম উপরোক্ত বক্তব্য দিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন- পার্বত্যবাসী বাঙালী ৩৫ হাজার নর-নারী জীবন দিয়েছে বাংলাদেশের এক ও অবিচ্ছেদ্য অংশ পার্বত্য চট্টগ্রামের ৫০৯৩ বর্গমাইল ভূমি রক্ষার জন্য। পাহাড়ের বাঙালিদের কবুলিয়ত প্রাপ্ত ও বন্দোবস্তিপ্রাপ্ত দলিলাদি থাকার পর ও অহরহ উচ্ছেদ করার ষড়যন্ত্র চলছে। দেশের এক দশমাংশ অঞ্চলের বৈধ নাগরিক হয়েও বাঙালিরা আজ ঘরের মালিক হয়েও ভূমির মালিকানা পাচ্ছে না। জাতির জন্য এটা খুবই অশুভ সংবাদ। পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলনের ৯ (নয়) দফা দাবী বাস্তবায়নের জন্য নেতৃবৃন্দ পুনরায় জোর দাবী জানান। তাছাড়া, তথাকথিত বামপন্থী ককাসদের চাপে ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে পার্বত্য মন্ত্রণালয়ের অধীনে পাহাড়ের ভূমির দেখভাল করার সিদ্ধান্ত খুবই আপত্তিকর ও অসাংবিধানিক বলে নেতৃবৃন্দ অভিমত প্রকাশ করেন।

অপর এক বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন- পাহাড়ে প্রথাগত ভূমি অধিকার ও ব্রিটিশ হিল ট্রাক্স ম্যানুয়েল এক্ট ১৯০০ বাতিল না করাতে অনেক উপজাতি ও বাঙালি মানবাধিকার বঞ্চিত হচ্ছেন। দেওয়ান, খিষা, তালুকদার, হেডম্যান, কারবারী ও চাকমা রাজার একাধিপত্য থাকাতে পাহাড়ে নূন্যতম গণতন্ত্র চর্চা হয়না। অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে পাহাড়ে জেএসএস ও ইউপিডিএফ নাগরিক জীবনকে দুর্বিসহ করে তুলেছে। পার্বত্যবাসী জনগন এর অবসান চায়।

১৩ ফেব্রুয়ারী, সকাল ১০টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমঅধিকার আন্দোলনের মানববন্ধন

পার্বত্য চট্টগ্রাম সমঅধিকার আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটি আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি, শনিবার, সকাল ১০টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন আহ্বান করেছে। ৯ দফা দাবী বাস্তবায়ন, পার্বত্য চট্টগ্রাম ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশনে বাঙালি প্রতিনিধি নিয়োগ এবং পাহাড়ের বাংলাভাষী জনগনের ভূমির অধিকার হরনের ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে উক্ত কর্মসূচী ঘোষনা করা হয়েছে। এ জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।

সম্পাদনা- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান