জেলা পরিষদের উদ্যোগে জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনাসভা

338

fathar of the nation

 
স্টাফ রিপোর্টার, ১৯ মার্চ ২০১৬, দৈনিক রাঙামাটি : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্মদিন ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের উদ্যোগে বৃহস্পতিবার পরিষদের সম্মেলন কক্ষে এক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা।

এতে বক্তব্য দেন পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ, পরিষদের সদস্য হাজী মোঃ মুছা মাতব্বর, সাধন মনি চাকমা, জেবুন্নেসা রহিম, জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক হাবিব উল্ল্যা, জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক রমনি কান্তি চাকমা, জেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শাহ নেওয়াজ বেগম প্রমূখ।

সভার শুরুতেই জাতির পিতার ৯৭তম জন্মদিন উপলক্ষে বিশাল আকারের কেক কেটে জন্মদির পালন করে অতিথিরা। সভায় চেয়ারম্যান বলেন, যার যার অবস্থানে থেকে আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের শিশুদের মাঝে তুলে ধরতে হবে। তারাই আগামী দিনে দেশ পরিচালনা করবে। তিনি বলেন, দেশকে লাল সবুজের পতাকা যে নেতা উপহার দিয়েছিল সেই জাতির জাতির পিতাকে হত্যা করে পাকিস্তানি দোসররা দেশকে নের্তৃত্ব শুন্য করতে চেয়েছিল। এমনকি পাঠ্য পুস্তকেও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর নাম পর্যন্ত রাখা হয়নি। পাকিস্তানি দোসররা মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করে দেশের মানুষের কাছে তুলে ধরে। তিনি  বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী চক্ররা এখনো স্বক্রীয় রয়েছে তাদের থেকে নিজেদের ও নতুন প্রজন্মের শিশুদের সুরক্ষা রাখতে হবে আমাদের। বঙ্গবন্ধুর দেশ প্রেম, আদর্শ ও গুনাবলিগুলো এই নতুন প্রজন্মদের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে।

তিনি আরো বলেন, জাতির পিতার সুযোগ্য কণ্যা দেশ পরিচালনার দায়িত্ব হাতে নেওয়ার পর বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা খুনিদের বিচার কাজ শুরু করেছে। তিনি দেশকে একটি উন্নয়নশীল ও সমৃদ্ধশালী দেশ হিসেবে পরিনত করেছে। যা অন্যকোন সরকার করতে পারেনি। তিনি সকল ক্ষেত্রে জনগনের সুখ শান্তিতে দারিদ্্র ও ক্ষুধামুক্ত দেশ গড়ার অঙ্গিকার করেছেন। জননেত্রীর সে অঙ্গীকার পুরনে সকলকে একসাথে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

পোস্ট করেনন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান