জেলা পরিষদে হস্তান্তরিত বিভাগগুলোকে সমন্বয়ের মাধ্যমে কাজ করতে হবে

101

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

রাঙামাটি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা বলেছেন, সততা ও নিষ্ঠার সাথে দেশ ও জাতির উন্নয়নে আমাদের কাজ করে যেতে হবে। পার্বত্য শান্তি চুক্তির মাধ্যমে জেলা পরিষদ সৃষ্টি হয়েছে এবং বিভিন্ন বিভাগ হস্তান্তরিত হয়েছে। হস্তান্তরিত বিভাগের সকলের সমন্বয়ে এ জেলা তথা দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে আমাদের কাজ করে যেতে হবে। সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার ফলেই আমাদের দেশ উন্নয়নের সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছাবে। রোববার সকালে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সভাকক্ষে আয়োজিত পরিষদের মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে চেয়ারম্যান এ কথা বলেন।

পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা ছাদেক আহমদ এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য ও হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। সভায় স্বাস্থ্য বিভাগের সিভিল সার্জন বলেন, গত ১২ ও ১৩জুন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত ও অসুস্থদের রাঙ্গামাটি জেনারেল হাসপাতাল ও ৬টি আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়মিত বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হচ্ছে।  তিনি বলেন, জেনারেল হাসপাতাল ও বিভিন্ন উপজেলায় স্বাস্থ্য বিভাগের জায়গা অবৈধ দখলের বিষয়ে জেলা প্রশাসনকে অবগত করা হয়েছে। এছাড়া চলতি মাসে শিশুদের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন ৯৯ভাগ সফল হয়েছে বলে তিনি সভাকে অবহিত করেন।

স্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের প্রতিনিধি বলেন, জেলার স্বাস্থ্য বিভাগের বিভিন্ন স্থাপনা ও কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণের কাজ অনেকাংশে শেষ হয়েছে। দুর্যোগের কারণে বাকীগুলো শেষ করতে বিলম্ব হচ্ছে।  জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলেন, বর্তমানে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকের শূন্যপদ রয়েছে। এছাড়া বেসরকারী প্রাথমিক স্কুল জাতীয়করণে যেসব স্কুল বাকী রয়েছে শিক্ষকদের তালিকা পেলে তাদের বেতনভাতা প্রদান করা হবে।

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, পিইডপি-৩এর জেলা ও উপজেলার বিদ্যালয়গুলোতে বিশুদ্ধ পানি নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে  জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল হতে টিউবওয়েল প্রদান করা হবে। জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জানান, জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ-২০১৭ উপলক্ষে গত ১৯জুলাই র‌্যালী, পোনা অবমুক্তও  আলোচনা সভা করা হয়েছে। এছাড়া জেলার প্রকৃত মৎস্যচাষীদের মধ্যে শীঘ্রই পোনা বিতরণ করা হবে।

জেলা সমাজ সেবা বিভাগের কর্মকর্তা বলেন, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা, বৃদ্ধ ভাতা’সহ অন্যান্য ভাতাসমূহ যথানিয়মে প্রদান করা হচ্ছে।

জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের কর্মকর্তা বলেন, গত ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে জেলা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর হতে বিভিন্ন বিষয়ে ৪৭জন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত যুবদের মাঝে ঋণ প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া বর্তমানে বেকার যুবদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হচ্ছে।

হর্টিকালচার সেন্টার বালুখালী, লংগদু ও বনরুপা, নানিয়ারচর এবং আসামবস্তী হর্টিকালচার সেন্টারে  লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী চারা কলম উৎপাদন ও বিক্রয় কার্যক্রম চলছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা। সরকারী গণগ্রন্থাগারের সহকারী লাইব্রেরিয়ান বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে সরকারী গণগ্রন্থাগারের উদ্যোগে রচনা, চিত্রাংকন ও আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাঙামাটি পর্যটন হলিডে কমপ্লেক্স এর ব্যবস্থাপক জানান, বর্তমানে অতিবৃষ্টির ফলে পর্যটনের ঝুলন্ত ব্রীজটি পানিতে ডুবে গেছে তাই পর্যটকও কম হচ্ছে। সভায় হস্তান্তরিত বিভাগের অন্যান্য কর্মকর্তাগণ তাদের বিভাগের স্ব স্ব কার্যক্রম উপস্থাপন করেন এবং বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে মতামত ও পরামর্শ প্রদান করেন।