নতুন চেহারায় ফিরছে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমধিকার আন্দোলন

548


॥ মোঃ হান্নান ॥

পাহাড়ের সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের অধিকার আদায় ও সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে গণপ্রতিরোধ গড়ে তোলার প্রত্যয়ে নতুন আঙ্গিকে আরো সংগঠিত হয়ে অসাম্প্রদায়িক সমাজ ব্যবস্থা গড়ে তোলার লক্ষ্যে পুণর্গঠন করা হচ্ছে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমধিকার আন্দোলন। এ লক্ষ্যে পাহাড়ের ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জাতিসত্তাগুলোর প্রতিনিধিসহ এ অঞ্চলে আন্দোলনে রত সকল পক্ষের সমন্বয়ে একটি আ

স্থাভাজন কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। শনিবার সকালে রাঙামাটি শহরের বনরূপাস্থ একটি রেঁেস্তারায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমন ঘোষণা দেন সংগঠনটির নেতৃবৃন্দ।

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ বলেন, আমরা কারো শত্রু নই এবং কেউ আমাদের প্রতিপক্ষও নয়। শুধু তাই নয়, আমরা কোনো বিশেষ সম্প্রদায়ের অধিকারের কথাও বলতে চাই না। আমরা চাই ন্যায্যতা এবং সম অধিকার।

তারা বলেন, এ বিষয়ে কারো দ্বিমত নেই যে, পার্বত্য চট্টগ্রাম দীর্ঘ সময়কাল ধরে সুবিধা বঞ্চিত একটি বিশেষ অঞ্চল। এখানে রয়েছে জাতিগত বৈচিত্র। এই সব কিছু নিয়েই আমরা পারস্পরিক সম্প্রীতি এবং আস্থার সাথে বসবাস করতে চাই। যারা সুবিধা বঞ্চিত তাদের কথা বিশ্ব দরবারে তুলে ধরতে চাই। সরকারের কাছে পিছিয়ে পড়া মানুষের ন্যায্য হিস্যা চাই।

নেতৃবৃন্দ জানান, খুব শীঘ্রই পার্বত্যাঞ্চলে বসবাসরত অধিকার বঞ্চিত সকল জনগোষ্ঠীর সমন্বয়ে একটি পর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হবে। সংবাদ সম্মেলনে আরো জানানো হয়, সন্ত্রাসীদের অব্যাহত চাঁদার কারণে বর্তমানে এ অঞ্চলের ব্যবসা বাণিজ্যে অস্থিরতা বিরাজ করছে।

তাছাড়া, ভূমি বিরোধ নিস্পত্তি কমিশনের কারণে ভীতসন্ত্রস্ত রয়েছে পাহাড়ে বসবাসরত একাধিক জনগোষ্ঠী। তাই অধিকার আদায়ে সকলের মাঝে আস্থা ফিরিয়ে আনতে সাংগঠনিকভাবে আরো শক্তিশালী হওয়াটা জরুরী হয়ে পড়েছে বিধায় সর্বস্তরের জনগণকে সাথে নিয়ে পার্বত্য চট্টগ্রাম সমধিকার আন্দোলন নতুন রূপে মাঠে নামতে চায়।

ভূমি রক্ষা আন্দোলনের আহবায়ক জাহাঙ্গীর আলম মুন্নার সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সমধিকার আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর কামাল, জেরা শাখার নেতা হাজি মোঃ ইউনুছ, জেলা শাখার সদস্য ওবায়দুল হক, মাওলানা ইব্রাহিম। সম্মেরনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন পার্বত্য যুব ফ্রন্টের কেদ্রীয় কমিটির সদস্য মোঃ শাহজাহান।