নাইক্ষ্যংছড়ির ইউএনও’র বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু

457

Untitled-1

স্টাফ রিপোর্টার, ৫ জানুয়ারি ২০১৬, দৈনিক রাঙামাটি : পার্বত্য জেলা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বিভিন্ন তহবিলের অর্থ নিয়ম না মেনে উত্তোলন, সাধারণ মানুষের সাথে দুর্ব্যবহারসহ ২৭টি অভিযোগের বিষয়ে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার এএসএম শাহেদুল ইসলামের বিরুদ্ধে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে করা অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছেন বান্দরবান জেলা প্রশাসন।

সোমবার সকালে নাইক্ষ্যংছড়ি ছালেহ আহমদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে অভিযোগের তদন্ত শুরু করেন বান্দরবান জেলা প্রশাসনের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. আবু জাফর। সরেজমিনে তিনি লিখিত অভিযোগের ৫৩ জনের মধ্যে বিভিন্ন স্থরের ২৫ জন লোকজনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ করেছেন।

তদন্ত কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: আবু জাফর সাংবাদিকদের বলেন- জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রেরিত একটি অভিযোগের তদন্ত করার জন্য তাঁকে দ্বায়িত্বভার দেওয়া হয়। তদন্তকালে ২৫জন বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের কাছ থেকে স্বাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্তকার্যক্রম চলছে জানিয়ে তদন্তের বিষয়ে তিনি আর কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

সূত্র জানিয়েছে, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু শাফায়াৎ মুহাম্মদ শাহেদুল ইসলামের বিরুদ্ধে গত ০৩ অক্টোবর ২০১৫ নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা জনসাধারণের পক্ষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে ৫৩ জনের স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ পাঠানো হয়। পরে উক্ত অভিযোগটি তদন্তের ভার দেওয়া হয় বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: আবু জাফরকে। তিনি গত ২২ ডিসেম্বর অভিযোগে উল্লেখিত নামের ব্যাক্তিদের শুনানীতে উপস্থিত থাকার জন্য নোটিশ প্রদান করেন। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গঠিত তদন্ত কমিটি সোমবার সরেজমিনে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছেন।

সরেজমিনে অভিযোগকারীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ে প্রেরিত অভিযোগে তারা স্বাক্ষর করেননি এবং অভিযোগের বিষয়ে তারা কিছুই জানেনা। আবার অনেকে নিজেদের নিরাপত্তার কথা বলে অভিযোগের বিষয়ে বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

সম্পাদনা- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান।  সূত্র- অন্য মিডিয়া(পার্বত্য নিউজ)