নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিতে রাঙামাটিতে স্মারকলিপি

309

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

দূর্গম পার্বত্য অঞ্চলের দু:স্থ ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠার জন্য নিরাপদ পানি ও স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণে দাবিতে বাংলাদেশ ফ্রেশওয়াটার একশন নেটওয়ার্কের পক্ষথেকে জেলা প্রশাসক বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছে। বুধবার (২৬ জানুয়ারি) বেলা এগারোটায় রাঙামাটি জেলা প্রশাসকের বরাবরে স্থানীয় সরকারের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো: মামুন’র কাছে এ স্মারকলিপি প্রদান করা হয়।
স্থানীয় ৬টি প্লাটফর্মের পক্ষে স্মারকলিপি প্রদান করেন, রাঙামাটি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার আল হক, গ্রীণহিলের প্রতিনিধি যতন কুমার দেওয়ান, অর্ণব দেওয়ার উইভ’র প্রতিনিধি নাইউ প্রু মারমা, ফুল্লরা চাকমা, আশিকার প্রতিনিধি বিপ্লব চাকমা, ককী তালুকদার। এছাড়াও প্রোগ্রেসিভ ও সিআইপিডির প্রতিনিধিবৃন্দরা উপস্থিত ছিলেন।

স্মারকলিপি উল্লেখ করা হয়, বিশ্বব্যাপি কোভিড-১৯ মহামারীর কারণে নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশনের গুরত্ব বৃদ্ধি পেলেও ওয়াশ কার্যক্রম প্রায় স্তিমিত হয়ে পড়েছে। কোভিড-১৯- এর আর্থিক মন্দার কারনে বিভিন্ন দাতাসংস্থা কর্তৃক প্রদত্ত অর্থের প্রবাহ হ্রাস পেয়েছে। ফলে বর্তমানে দূর্গম পাহাড়ি অঞ্চলগুলোতে নিরাপদ পানি ও স্বাস্থ্যকর পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা সম্ভব হচ্ছে না; যা দুঃুস্থ জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যহীনতার অন্যতম কারণ। এসডিজি-৬ এর লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের ক্ষেত্রে আমাদের এই সমস্যার সমাধানের কোন বিকল্প নেই।
স্মারকলিপি আরো উল্লেখ্য করা হয়, ফ্রেশওয়াটার একশন নেটওয়ার্ক দক্ষিণ এশিয়ার ৮টি দেশ বাংলাদেশ, ভারত, নেপাল, শ্রীলংকা, ভূটান, মালদ্বীপ, আফগনিস্তান ও পাকিস্থানের সমন্বয়ে গঠিত একটি আঞ্চলিক নেটওয়ার্ক। ২০০৮ সালে প্রতিষ্ঠিত ফ্রেশওয়াটার একশন নেটওয়ার্ক দক্ষিণ এশিয়ার নিরাপদ পানি ও স্যানিটেশন নিশ্চিতকরণে সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ায় নাগরিক সমাজের ভূমিকা শক্তিশালী করার মাধ্যমে ওয়াশ সেক্টরে সুশাসনের লক্ষ্যে কাজ করে। বাংলাদেশে নেটওয়ার্কটি বাংলাদেশ ফ্রেশওয়াটার একশন নেটওয়ার্ক নামে পিছিয়ে থাকা মানুষের পানীয় জল এবং স্যানিটেশনের অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এডভোকেসী করে যাচ্ছে।
এতে আরো বলা হয়, জেলার সকল নাগরিকের জন্য নিরাপদ পানি ও স্বাস্থ্যকর পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে কোভিড-১৯ মোকাবেলায় একটি টেকসই স্বাস্থ্য পরিচর্যা ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে নি¤œলিখিত কার্যক্রমসমূহ বাস্তবায়নে সম্মিলিত উদ্যোগ গ্রহণ জরুরী:

কার্যক্রম ১ঃ জেলার প্রত্যন্ত দূর্গম পাহাড়ি অঞ্চলের বাসিন্দাদের জন্য যত দ্রুত সম্ভব নিরাপদ পানি ও স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা।

কার্যক্রম ২ঃ হঠাৎ বৃষ্টি ও জলাবদ্ধতাকে মাথায় রেখে এবং সম্ভাব্য ছড়াছড়ির গতি পরিবর্তনের কথা মাথা রেখে স্থানীয় গ্রামবাসীদের অভিজ্ঞতা নিয়ে নলকূপ স্থাপন ও সম্প্রসারণে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে নির্দেশনা প্রদান।

কার্যক্রম ৩ঃ পাহাড়ি অঞ্চলগুলোতে স্থানীয় উদ্যোক্তা তৈরির মাধ্যমে ইউনিয়ন পর্যায়ে দরিদ্র এবং প্রান্তিক জনগণের মধ্যে দুর্যোগ সহনশীল স্যানিটেশন ব্যবস্থা এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুশীলনে উদ্যোগ জোরদারকরণ।

কার্যক্রম ৪ঃ দরিদ্র এবং প্রান্তিক জনগণের নিরাপদ পানি ও স্বাস্থ্যকর পয়ঃনিস্কাশন ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণে সরকারি ভাবে প্রয়োজনীয় উপকরণ সরবরাহ, পরিচালনা এবং রক্ষণাবেক্ষণের জন্য স্থানীয় সরকারের (ইউপি) সক্ষমতা ও তহবিল বৃদ্ধি।

কার্যক্রম ৫: ওয়াশ খাতে জাতীয়, জেলা, উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায়ে একটি সমন্বিত প্রয়াসে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের উদ্দোগী হওয়া এবং প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করা অত্যন্ত জরুরী।

কার্যক্রম ৬: পার্বত্য অঞ্চলের উপযোগী পানি ও স্যানিটেশন ব্যবস্থার উপর একটি ব্যাপক গবেষনা কার্যক্রম হাতে নেয়ার প্রয়োজনীতার উপর গুরুত্ব আরো করা, এক্ষেত্রে স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়, পার্বত্য বিষষয়ক মন্ত্রনালয়, আঞ্চলিক পরিষদ, জেলা পরিষদের সমন্বয়ে একটি সমন্বিত উদ্দ্যোগ নেয়ার আহবান জানাচ্ছি।
বাংলাদেশ ফ্রেশওয়াটার একশন নেটওয়ার্ক জেলার পিছিয়ে পড়া ও সুবিধাবঞ্চিত জনগোষ্ঠীর নিরাপদ পানি ও স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করার যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে জেলা প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানিয়েছে রাঙামাটি প্রেস ক্লাব, এনজিও গ্রীণহিল, উইভ, আশিকা, প্রোগ্রেসিভ ও সিআইপিডিসহ স্থানীয় ৫টি এনজিও সংস্থা।