নয়ন হত্যাকারিদের গ্রেফতারের দাবিতে রাঙামাটি শহরে যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশে

394

আলমগীর মানিক- ২ জুন ২০১৭, দৈনিক রাঙামাটি:  ঘিলাছড়িতে মোটর সাইকেল চালক হত্যার ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারো এক বাঙ্গালী মোটর সাইকেল চালক নয়নের লাশ উদ্ধারের ঘটনায় উত্তপ্ত হয়েছে উঠেছে পাহাড়ের পরিস্থিতি। এর মাস খানেক আগে খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গায় আরো এক মোটর সাইকেল চালক খুন হয়। গত একমাসে তিন মোটর সাইকেল চালককে হত্যার বিষয়টি একই সূত্রে গাঁথা এবং কোনো বড় ধরণের ঘটনার ইঙ্গিত বলে মনে করছেন সকলে।

লংগদু উপজেলার বাইট্টা পাড়া এলাকার বাসিন্দা ও ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়নকে ভাড়ায় নিয়ে পরিকল্পিতভাবে হত্যার প্রতিবাদে লংগদুতে বাঙালিরা ব্যাপক বিক্ষোভ প্রদর্শন ছাড়াও এই ঘটনার জেরে রাঙামাটি শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে করেছে রাঙামাটি জেলা যুবলীগ, বাঙ্গালী ছাত্রপরিষদসহ বেশ কয়েকটি সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

নয়নের হত্যাকারি সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের দাবিতে শুক্রবার বেলা এগারোটার সময় রাঙামাটি শহরের আলিফ মার্কেট চত্ত্বর থেকে শুরু হওয়া যুবলীগের বিক্ষোভ মিছিলটি শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে আলিফ মার্কেট চত্ত্বরে সমাবেশে মিলিত হয়। রাঙামাটি জেলা যুবলীগের সভাপতি ও পৌরমেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, জেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মো: শামসুল আলম, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজল, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজন প্রমুখ।

এদিকে একই দাবিতে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে পার্বত্য বাঙ্গালী ছাত্র পরিষদের নেতাকর্মীরা। সংগঠনের জেলা সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও ছাত্রনেতা তুহিনের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি পৌর চত্বর থেকে শুরু হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বনরূপাস্থ পেট্টোল পাম্প চত্বরে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশ থেকে আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে নয়নের হত্যাকারি সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের আল্টিমেটাম দেন নেতৃবৃন্দ।
এসব সমাবেশে বক্তারা বলেন, পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করার জন্যে পাহাড়ে আঞ্চলিক দলগুলো ধারাবাহিকভাবে হত্যাযজ্ঞ চালিয়ে যাচ্ছে। কয়েকমাস আগে মোটর সাইকেল চালক শান্তকে হত্যার পর কিছুদিনের মধ্যেই আমার হত্যা করা হয় নীরিহ মোটর সাইকেল চালক ছাদিকুল ইসলামকে। এই ঘটনার পরবর্তী পাহাড়ের বাতাসে ছাদিকুলের লাশের গন্ধ শুকানোর আগেই লংগদু’র সদালাপী সর্বজন পরিচিত মোটর সাইকেল চালক নুরুল ইসলাম নয়নকে সেই একই কায়দায় ভাড়ায় নিয়ে নির্মমভাবে হত্যা করে লাশ ফেলে রেখে মোটর সাইকেলটি নিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা।

জানাগেছে, বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে দশটার সময় দুইজন পাহাড়ি যুবককে ভাড়ায় লংগদু থেকে নিজের মোটরসাইকেল নিয়ে খাগড়াছড়ির দীঘিনালার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় নুরুল ইসলাম নয়ন। এরই মধ্যে নয়নকে হত্যা করে তার লাশ ফেলে রেখে মোটর সাইকেলটি নিয়ে পালিয়ে যায় যাত্রীবেশি উক্ত দুই পাহাড়ি যুবক। দুপুরের দিকে নয়নের লাশ উদ্ধার করে নিরাপত্তা বাহিনী।

এদিকে প্রশাসনের ব্যক্তিবর্গ উত্তেজিত জনতাকে শান্ত থাকার পরামর্শ দিয়ে উক্ত ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় আনার প্রতিশ্রুতি প্রদান করেছেন।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরো প্রধান ।