পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করা হলো রাঙামাটির ঝুলন্ত সেতু

492

p-2

॥ মঈন উদ্দন বাপ্পী ॥

কাপ্তাই হ্রদের পানি কমে যাওয়ায় দীর্ঘ দু’মাস পর সিম্বল অব রাঙামাটি খ্যাত ঝুলন্ত সেতুটি ভেসে উঠছে। শনিবার বিকেল থেকে সেতুটি পর্যটকদের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হয়।

এ ব্যাপারে রাঙামাটি পর্যটন কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক আলোক বিকাশ চাকমা জানান, দীর্ঘ দুইমাস পর শুক্রবার বিকেল থেকে ঝুলন্ত সেতু থেকে পানি সরতে শুরু করায় শনিবার বিকেল থেকে সেতুটি পর্যটকদের চলাচলে উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, ঝুলন্ত সেতুটি পানিতে ডুবে থাকায় অনেক পর্যটক রাঙামাটি থেকে হতাশ হয়ে ফিরে গেছেন। এতে আমাদের আয়ও অনেক কম হয়েছে। তিনি বলেন, একদিকে যেমন আমাদের মোটেলগুলো ভাড়া কম ছিল, তেমনি সেতুটি থেকে প্রাপ্ত অর্থ থেকে দীর্ঘদিন বঞ্চিত হয়েছি। এবার সেতুটি ভেসে উঠায় পর্যটকদের মাঝে প্রাণ সঞ্চার ফিরে আসবে বলে আশা করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, সেতুটি দীর্ঘদিন জলমগ্ন থাকায় কিছু ছোটখাট সমস্যা হয়েছে, হ্রদের পানি আরও কমলে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে সেতুটি মেরামত করা হবে।

উল্লেখ্য গত ১৮ সেপ্টেম্বর রোববার বিকেলে কাপ্তাই হ্রদের পানি বেড়ে যাওয়ায় সেতুটির পাটাতন ডুবে গেলে পর্যটন কর্তৃপক্ষ সেতুটিতে চলাচল বন্ধ করে দেয়। ৮০এর দশকে নির্মাণ করা রাঙামাটির এই ঝুলন্ত সেতুটি দেশি বিদেশি পর্যটকদের কাছে একটি আকর্ষণীয় স্থান।

সেতুটি নির্মাণের পর দীর্ঘ প্রায় তিন দশক এই সেতুটি জলমগ্ন হওয়ার নজির নেই। কিন্তু গত কয়েক বছর ধরে প্রতি বছরই বর্ষা মওসুমে সেতুটি পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে। জানা গেছে কাপ্তাই হ্রদের তলদেশ ভরাট হয়ে পানির উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় এই অবস্থার সৃষ্টি হচ্ছে। এ অবস্থা নিরসনে অতিসত্তর কাপ্তাই হ্রদে ড্রেজিং এর কাজ শুরু করা জরুরী বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষক মহল।