পাহাড়ের পর্যটন শিল্প একদিন সারা দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখবে : ডিসি রাঙামাটি

513

p...3

স্টাফ রিপোর্টার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৫, দৈনিক রাঙামাটি : রাঙামাটিসহ তিন পার্বত্য জেলায় পর্যটন শিল্পের যে অমীয় সম্ভাবনা রয়েছে, একে কাজে লাগানো গেলে, পাহাড়ের আয় থেকে সারাদেশের অর্থনীতিতে উল্লেখ যোগ্য অবদান রাখতে পারবে। একদিন সে সময় অবশ্যই আসবে, তবে এ লক্ষ্যে এখন থেকে সবাইকে একযোগে কাজ করতে হবে। এমন মন্তব্য করে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মো. সামসুল আরেফিন বলেন, তবে পর্যটকদের আগ্রহ ধরে রাখার জন্য পরিবহন শ্রমিক- মালিক, হোটেল বয় ও মালিক, দোকানদার এবং সাধারণ মানুষ সকলকেই নিজেদের অভ্যাসের পরিবর্তন করতে হবে। মনে রাখতে হবে এ খানে যারা বেড়াতে আসেন তারা আমাদের অতিথি। আমাদের আচরনই তাদের বারে বারে এই এলাকায় টেনে আনতে পারে। তিনি বলেন, পর্যটন শিল্পকে প্রসারিত করতে শীঘ্যই রাঙামাটি-কক্সবাজার রুটে যাত্রীবাহী বাস সার্ভিস চালুর বিষয়টি নিশ্চিত করা হবে। বৃহস্পতিবার রাঙামাটির অভ্যন্তরীণ রুটে কাউখালী উপজেলার সঙ্গে সরাসরি বাস সার্ভিস চালু উপলক্ষে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক কথা বলেন।

রাঙামাটি চট্টগ্রাম বাস মালিক সমিতির রাঙামাটি জেলা সভাপতি মঈন উদ্দিন সেলিম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন কাউখালী নির্বাহী কর্মকর্তা আফিয়া আখতার, রাঙামাটি চট্টগ্রাম বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক হাজী আব্দুল রহমান, রাঙামাটি-চট্টগ্রাম বাস শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. আলম ও রাঙামাটি প্রেসক্লাবের সবাপতি সাখাওয়াৎ হোসেন রুবেল।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাঙামাটি শহর ও কাউখালী উপজেলার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ পরিবহন সেক্টরের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন রাঙামাটি চট্টগ্রাম বাস মালিক সমিতির সহ-    সাধারণ সম্পাদক হাজী মুনীর।

জেলা প্রশাসক বলেন, শুধু বাস সার্ভিস চালু করলে হবে না। যাত্রী সেবার মানও বাড়াতে হবে। পর্যটন শহর রাঙ্গামাটিতে যাত্রী সেবার মান বাড়লে পর্যটকরা আসবে। আর সেবার মান ভালো না হলে পর্যটকরা কষ্ট পাবে অন্য পর্যটকরা আর আসবে না। তাই পর্যটন শিল্পকে এগিয়ে নিতে যাত্রী সেবার মান বাড়াতে হবে। তিনি বলেন, আজ যে সার্ভিস চালু হলো, সেটা যাতে বন্ধ হয়ে না যায় সে দিকে আমাদের সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। যদি কোনো সমস্যা হয় তবে আলোচনার মাধ্যমে এই এই সমস্যা সমাধান করতে হবে। তিনি সমস্যাকে জিয়ে না রেখে আলোচনার টেবিলে নিয়ে আসার আহবান জানান।

নেতৃবৃন্দ জানান, এখন থেকে রাঙামাটি মোটর মালিক সমিতির আওতায় প্রতিদিন একটি বাস সকালে রাঙামাটি থেকে ছেড়ে যাবে এবং তা বিকালে কাউখালী থেকে যাত্রী নিয়ে রাঙামাটি শহরে ফিরে আসবে।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান