পাহাড়ের ৪০হাজার পরিবার সৌরবিদ্যুৎ পাবে তবে কাউকে অনৈতিক সুবিধা নিতে দিবেন না: চেয়ারম্যান নিখিল

345

॥ সোহরাওয়ার্দী সাব্বির ॥

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এর চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা বলেছেন, পাহাড়ের ৪০হাজার হাজার পরিবার সৌরবিদ্যুৎ সুবিধা ভোগ করবে। মঙ্গলবার (১২অক্টোবর) সকালে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌছে দেওয়ার মেগা প্রকল্পের আওতায় সারাদেশের ন্যায় পাহাড়ের দুর্গম বাসিন্দারাও এ সুবিধা পাবে। সেনাবাহিনীর মেশিনারিজ টুলস এসব সোলার প্যানেল সরবরাহ করবে। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ইতোমধ্যেই এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে বলে জানান তিনি। চেয়ারম্যান বলেন, পাহাড়ের দূর্গম অঞ্চলে যারা বসবাস করে তারা বিদ্যুতের অভাবে সরকারের ডিজিটাল সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে, তাদের দুর্দিন সহসাই কেটে যাবে। তবে তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেন কোনো সোলার বিতরণ বা পাইয়ে দেবার নামে কোনো অসাধু ব্যক্তি যেন অনৈতিক সুবিধা নিতে না পারে সে বিষয়ে সকলকে সজাগ থাকতে হবে। তিনি এও বলেন যে, যেসব এলাকায় বিদ্যুৎ আছে সেখানে কোন সোলার প্যানেল স্থাপন করা হবে না।

এর আগে চেয়ারম্যান বাঘাইছড়ি উপজেলায় প্রবেশ করলে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত করা হয়। এসময় বাঘাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বৃৃষকেতু চাকমার সভাপতিত্বে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি হাজী কামাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক কেরল চাকমা, জেলা পরিষদের সদস্য প্রিয়নন্দন চাকমা, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কাইয়ুম, পৌর মেয়র জাফর আলী খান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাগরিকা চাকমা, ওসি বাঘাইছড়ি আনোয়ার হোসেন খান, প্রেস ক্লাব সভাপতি দীলিপ কুমার দাশ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন মামুনসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনার পর পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় এক কোটি ৫৫লাখ ৫০হাজার টাকা ব্যয়ে নির্মনাধীন বটতলী কমিউনিটি সেন্টার, কাচালং বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের উর্দ্ধমুখী সম্প্রসারন ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন, পৌরসভার সীমানা হতে নালকাটাছড়া মৌত্রিপুর বিহার পর্যন্ত রাস্তাসহ পাঁচটি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন তিনি। এরপর তিনি উন্নয়ন বোর্ডের বাঘাইছড়ি রাবার বাগান প্রকল্প পরিদর্শন করেন।