পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের শিক্ষার্থীদের জন্য প্রশাসন সকল প্রকার উদ্যোগ গ্রহণ করবে

269

॥ মঈন উদ্দীন বাপ্পী ॥

রাঙামাটি জেলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান বলেছেন, পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের শিক্ষার্থীদের শিক্ষা জীবনে যাতে কোনো ধরনের ব্যাঘাত না আসে, সে জন্য প্রশাসন থেকে সকল প্রকার উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

তিনি বলেন, জেলা প্রশাসন দুর্ঘটনার পরপরই ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করার পাশাপাশি কি পরিমাণ শিক্ষার্থী আশ্রয় কেন্দ্রে আছে তারও একটি পরিসংখ্যান গ্রহণ করে। এসব শিক্ষার্থীর জন্য নতুন বই সরবরাহ ছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণ ও প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহে কার্যকর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। প্রয়োজনে আর্থিক সহায়তা দিয়ে শিক্ষার্থীদের মনবল ঠিক রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। এর পরও কোনো শিক্ষার্থী যে কোনো ধরনের অসুবিধায় পড়লে যেন সরাসরি জেলা প্রশাসনের সাথে যোগযোগ করে সে লক্ষ্যে তিনি সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।

সোমবার  দুপুরে রাঙামাটি সরকারি কলেজের আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রিত শিশুদের মাঝে শিক্ষা উপকরণ বিতরণ জেলা প্রশাসক এসব কথা বলেন। বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ব্র্যাকের উদ্যোগে এসব শিক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙামাটি পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী।

বিতরণ অনুষ্ঠানে ডিসি মান্নান বলেন, আসলে শিক্ষার্থীদের জন্য তো বটেই অন্যান্য ক্ষতিগ্রস্তদের বিষয়েও রাঙামাটির জন প্রতিনিধিত্বশীল প্রতিষ্ঠানগুলোর যে ভাবে এগিয়ে আসা উচিৎ ছিল। তা আমরা প্রত্যক্ষ করিনি। এটা দুঃখজনক। তিনি আশা করেন, সকল সরকারি প্রতিষ্ঠান সমন্বয়ের মাধ্যমে একযোগে কাজ করলে দুর্যোগ মোকাবেলা আরো সহজ হবে।

তিনি উল্লেখ করেন যে, সরকারিভাবে রাঙামাটির ক্ষতিগ্রস্তদের সম্ভাব্য সব ধরণের সহায়তা করা হয়েছে। পাশাপাশি যে সব বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এই মানুষগুলোর পাশে এসে দাঁড়িয়েছে তা নজিরবিহীন। তিনি ব্র্যাকসহ সকল বেসরকারী সংস্থাকে তাদের উদ্যোগের জন্য সাধাবাদ জানান।

উপকরণ বিতরণকালে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, রাঙামাটি সরকারি কলেজের উপাধ্যক্ষ বিধান চন্দ্র বড়–য়া,  ব্যাকের রিজিউনাল ম্যানেজার অমীরদর্শী চাকমা,  ব্যাকের জেলা প্রতিনিধি সমীর  কুমার কুন্ড প্রমুখ। এ পর্যায়ে অতিথিরা ৪৫জন শিশুর মাঝে শিক্ষার উপকরণ করেন।

ব্র্যাকের প্রতিনিধি সমীর কুন্ড দৈনিক রাঙামাটিকে জানান, দুর্ঘটনার পরপরই ব্র্যাক কর্মীরা সরেজমিনে গিয়ে বিভিন্ন আশ্রয় কেন্দ্র থেকে তথ্য সংগ্রহ পূর্বক একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রস্তুত করেছে। সে অনুযায়ী যে মেন চাহিদা ব্র্যাক সে আঙ্গিকেই সহায়তা করে যাচ্ছে। তিনি জানান, ব্র্যাক ৫ শতাধিক শিশুর জন্য শিক্ষা উপকরণ বিতরণ করছে।