পুলিশী বাধায় রাঙামাটি বিএনপির মানববন্ধন পন্ড

507

॥ আলমগীর মানিক ॥

মায়ানমারে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠির উপর হত্যা ও অমানবিক নির্যাতন বন্ধসহ বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণ করা রোহিঙ্গাদের প্রতি মানবিক আচরণসহ সাহায্য প্রদানের দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আয়োজিত মানববন্ধন কর্মসূচী পুলিশি বাধার মুখে রাজপথে পালন করতে না পারলেও কার্যালয়ে পালন করে রাঙামাটি বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা। জনভোগান্তি ও বিশৃঙ্খলার আশঙ্কায় জেলা প্রশাসন কর্তৃক পরিচালিত মোবাইল কোর্টের উপস্থিতি ও পুলিশের বেষ্টনীতে কার্যালয়ের ভেতর থেকে বেরই হতে পারেনি বিএনপির নেতাকর্মীরা।

শুক্রবার সকালে রাঙ্গামাটি জেলা বিএনপি’র কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করতে চাইলে পুলিশ নেতাকর্মীদের ঘিরে রাখে এবং দলীয় কার্যালয় থেকে কাউকে বের হতে না দেয়ার কারণে কার্যালয়ের ভিতরে নেতাকর্মীরা ব্যানার নিয়ে সংক্ষিপ্ত মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করার চেষ্টা চালালে কার্যালয়ের বাইরে অবস্থানরত পুলিশ কর্মকর্তাদের আপত্তির মুখে নেতাকর্মীরা ব্যানার গুটিয়ে ভেতরে চলে যায়।

এসময় কার্যালয়ের বাইরে মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারী কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ও জেলা প্রশাসনের এনডিসি তাপস শীল, রাঙামাটি পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাফায়াৎ হোসেন, সার্কেল পুলিশ সুপার মোঃ জাহাঙ্গীর, কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ সত্যজিৎ বড়–য়া, এসআই লিমন বোস, এসআই সৌরজিৎ বড়–য়াসহ পুলিশের উদ্বর্তন কর্মকর্তা ও বিপুল পরিমান পুলিশ সদস্য বিএনপি কার্যালয় ঘিরে বেষ্টনী দিয়ে রাখে।

এসময় রাঙ্গামাটি জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক দীপন তালুকদার, জেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড. সাইফুল ইসলাম পনির, জেলা যুবদলের সভাপতি সাইফুল ইসলাম শাকিল, জেলা ছাত্রদলের যুগ্ন সম্পাদক কামাল হোসেনসহ অন্যান্য সহযোগি সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারি জেলা প্রশাসনের এনডিসি তাপস শীল জানান, জনদূর্ভোগ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার লক্ষ্যেই জেলা প্রশাসন কর্তৃক মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে। আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

অপরদিকে পুলিশের উদ্বর্তন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে এলাকার শান্ত পরিবেশ অশান্ত করার কাজে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্যে উপর থেকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এরই আলোকে রাস্তায় আন্দোলনের নামে বিতর্কিত কর্মকান্ড সৃষ্টি করতে সুযোগ নাদিতেই পুলিশ এখানে অবস্থান নিয়েছে।

এদিকে বিএনপির নেতৃবৃন্দের অভিযোগ, আমরা মায়ানমার জনগোষ্ঠির যে নির্যাতন হচ্ছে তার প্রতিবাদে জেলা বিএনপি শান্তিপূর্ণ মানবন্ধন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশের বাধার মুখে আমরা মানবিক দাবীগুলো উপস্থাপন করতে পারিনি। এই ধরনের একটি শান্তিপূর্ন কর্মসূচীতে পুলিশের বাধা প্রদান পক্ষান্তরে মায়ানমারের সন্ত্রাসী সরকারের পক্ষেই বাংলাদেশের অবৈধ সরকারের অবস্থান নিশ্চিত করা হয়েছে বলে প্রতীয়মান হয়েছে। এই ধরনের কর্মকান্ডের তীব্র নিন্দাও জানিয়েছে রাঙামাটি জেলা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।