পে-কমিশনের বৈষম্য দূর কর অবিলম্বে নতুন মজুরি স্কেল ঘোষণার দাবি সিপিবি’র

451

img-single_9439cpb-logo

ঢাকা ব্যুরো অফিস, ২ জানুয়ারি ২০১৬, দৈনিক রাঙামাটি (সংবাদ বিজ্ঞপ্তি) : বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি’র) সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম এবং সাধারণ সম্পাদক  কমরেড সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ এক বিবৃতিতে পে-কমিশনের ঘোষণার অসংগতি ও অবনমন নিরসনের এবং অবিলম্বে বেসরকারি কর্মচারিদের বেতন ভাতার ক্ষেত্রে নীতিমালা প্রণয়ন করার ও শ্রমজীবীদের জন্য মজুরি স্কেল ঘোষণা করার দাবি জানিয়েছেন।

নেতৃবৃন্দ ‘জাতীয় ন্যূনতম মজুরি’ নির্ধারণ করে তার বাধ্যতামূলক বাস্তবায়ন নিশ্চিত করতে ও নতুন মজুরি স্কেল ঘোষণা করে ২০১৪ সালের জুলাই মাস থেকে তা কার্যকর করার দাবি জানিয়েছেন। রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রীপরিষদ ও সংসদ সদস্য থেকে শুরু করে জনপ্রসাশনের সকল স্তরে বেতন-ভাতা প্রায় দ্বিগুণ বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে এ বিবৃতি দেয়া হয়েছে। নেতৃবৃন্দ বলেছেন, মোট জনগোষ্ঠীর মাত্র চার শতাংশ মানুষ সরকারি বেতন ভোগ করেন। তাদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধি করাটা যুক্তিযুক্ত হয়েছে ঠিকই। কিন্তু তাদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির ফলে বাজারে একলাফে মূল্যস্ফূতি ঘটেছে। এমতাবস্থায় চলতি বাজারে অধিকাংশ শ্রমজীবী মানুষের ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরতদের পক্ষে তাদের বিদ্যমান জীবন মান বজায় রাখা অসম্ভব হয়ে উঠেছে। নেতৃবৃন্দ এই ‘বেইনসাফের’ নীতির তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছেন। একই সাথে জাতীয় ন্যূনতম মজুরি ১০,০০০ টাকা নির্ধারণ করার দাবি জানিয়েছেন।

জাতীয় পে-কমিশনের নতুন বেতন কাঠামোর প্রেক্ষিতে শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারিদের মধ্যে সৃষ্টি হওয়া অসন্তোষ প্রসঙ্গে নেতৃবৃন্দ বলেনছে, আমলাদের প্রতি পক্ষপাতিত্বের কারণেই এরূপ পরিস্থিতির উদ্ভব ঘটেছে আমলাদের স্বার্থান্ধ চক্রান্তের ফলেই এক গুরুতর অন্যায় সাধিত হয়েছে ও চরম বিশৃংঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে বলে নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে জানিয়েছেন। নেতৃবৃন্দ সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন বেতনের অনুপাত ১ঃ১০ করার সমালোচনা করে বলেছেন যে, মুক্তিযুদ্ধের পর এই অনুপাত ১ঃ৬ করা হয়েছিল।

নেতৃবৃন্দ ৩ অনুপাতিকে বর্তমান ১ঃ১০ বৈষম্যমূলক বলে উল্লেখ করেছেন। নেতৃবৃন্দ বলেছেন, এছাড়াও জনপ্রশাসনে শিক্ষক, প্রকৌশলী, চিকিৎসক, কৃষিবীদসহ অনেকের মর্যাদার অবনমনের ঘটনা ঘটেছে। নেতৃবৃন্দ পে-কমিশনের ঘোষণা সংশোধন করে এই বৈষম্য এবং মর্যাদার অবনমন দূর করার দাবি জানিয়েছেন। একই সাথে নেতৃবৃন্দ তাদের বিবৃতিতে দেশের বৃহৎ শ্রমজীবী মানুষ ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকুরিজীবী কোটি কোটি মানুষের স্বার্থের বিষয়ে উদাসীন থেকে আমলাদের খুশি রাখার সরকারি নীতির তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

পোস্ট- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান।