বরকলে দুলা ভাইয়ের বিরুদ্ধে শ্যালিকা ডেইজির অভিযোগ

677

p.......8

বরকল প্রতিনিধি, ২৭ নভেম্বর ২০১৫, দৈনিক রাঙামাটি : দুলা ভাইয়ের কাছে পাওনা টাকা আদায় করতে গিয়ে মারধোর সহ নানা অত্যাচার ও হয়রানির শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ করছেন ডেইজি আক্তার নামে এক অসহায় মহিলা। তিনি তার আপন দুলাভাই জনৈক গোলাম রব্বানীর বিরুদ্ধে মারধোর করা তার সাজানো সংসার ভেঙ্গে দেয়া এবং তার বিরুদ্ধে একের পর এক মামলায় জড়িয়ে হয়রানী করার অভিযোগ এনে বরকল উপজেলা প্রেস ক্লাবে এসে সাংবাদিকদের সাহায্য কামনা করেন।

ডেইজি তার অভিযোগে বলেন- তার দুলাভাই গোলাম রব্বানী তার মেয়ের চাকরী ও গৃহ নির্মানের নামে গত ২০১৪ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর হাওলাতি হিসাবে ২লক্ষ টাকা চট্টগ্রামে উকিলের চেম্বারে স্বাক্ষীগনের সম্মুখে ষ্ট্যাম্পে লিখিত দিয়ে বুঝে নেন। হাওলাতি চুক্তিনামায় ওই টাকা এক মাসের মধ্যে পরিশোধ করতে ব্যর্থ হলে ডেইজি আক্তার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করতে পারবে। কিন্তু গোলাম রব্বানী দীর্ঘ এক বছরেও হাওলাতি টাকা না দিয়ে ডেইজি আক্তার যতবার টাকা চাইতে গেছে ততোবার তাকে মারধোর ও লাঞ্চিত করেছে। এতো কিছুর পরেও টাকাগুলো ফেরত না পাওয়ায় অবশেষে রাঙামাটির কোতয়ালী থানায় গোলাম রব্বানীর বিরুদ্ধে লিখিত  অভিযোগের পর কতোয়ালী থানার উদ্যোগে সালিশ বৈঠক করা হয়।

গত ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারী টাকা ফেরত দেয়ার শর্তে সমঝোতা চুক্তিপত্র সম্পাদিত হয়। ওই চুক্তিপত্রে দুই মাসের মধ্যে টাকা পরিশোধ করতে না পারলে গোলাম রব্বানী তার দখলকৃত খাস জায়গাটি ডেইজি আক্তারের নামে দখল হস্তান্তর করবে। কিন্তু নির্দিষ্ট সময়ে টাকাগুলো পরিশোধ করতে না পারায় গত ২০১৫ সালের ৩০ জুন গোলাম রব্বানী বরকল বাজারে অবস্থিত তার দখলকৃত খাস জায়গার উপর দোকান ঘরটি ডেইজি আক্তারের কাছে দখল হস্তান্তর করেন।

দখল হস্তান্তর করার সময় কতোয়ালী থানার এএসআই মো. নাজির আহম্মেদ বরকল উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হেমায়েত আলম জেলা মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফরসহ গণ্যমান্য ব্যাক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। পাওনা টাকার পরিবর্তে দোকান ঘরটি দখল স্বত্ব পাওয়ায় পর দোকান ঘরটি ডেইজি আক্তার ভাড়া দিলে গোলাম রব্বানী ও তার স্ত্রী মাকসুদা বেগম ভাড়াটিয়ার তালা ভেঙ্গে দোকান ঘরে ঢুকে ভাড়াটিয়ার মালামাল ক্ষতি সাধন করে।

পরে ডেইজি আক্তার বরকল থানায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা করে। সেই সাথে দোকান ভাড়াটিয়া সুলেখা চাকমাও গোলাম রব্বানী ও স্ত্রী মাকসুদা বেগমের বিরুদ্ধে জিডি করে। ডেইজি আক্তার আরো জানান- গোলাম রব্বানী ও তার স্ত্রীর মাকসুদা বেগমের বিরুদ্ধে মামলা ও জিডি করায় তাদের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ডেইজি আক্তার ও তার স্বাক্ষী বাচা মিয়ার বিরুদ্ধে কোর্টে পর পর দুটি ফৌজদারী মামলা করে গোলাম রব্বানী।

শুধু মামলা করে ক্ষান্ত হয়নি তাকে মামলা প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য এবং তাদের বিরুদ্ধে স্বাক্ষী না দেয়ার জন্য রীতিমত চাপ সৃষ্টি করছেন। মামলা তুলে না নিলে প্রাণনাশের ও হুমকি দিচ্ছেন। এছাড়াও তার পক্ষে যারা কথা বলে তাদের বিরুদ্ধে গোলাম রব্বানী ও তার পরিবারের সদস্যরা নানাভাবে অভিযোগ করে হয়রানি করছেন।

সম্পাদনা- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান