বাঘাইছড়ি যাওয়ার একমাত্র সড়কটির বেহাল দশা যোগাযোগ বিচ্ছন্ন হওয়ার আশঙ্কা

369

॥ বাঘাইছড়ি প্রতিনিধি ॥
দুর্গম উপজেলা বাঘাইছড়ি দিয়ে সড়ক যোগাযোগের মূল সড়ক দিঘিনালা সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার না করায় এই সড়কটি এখন জন দুর্ভোগের কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে। সড়কের বেহাল দশা, খানা খন্দ ও বড় বড় গর্তের ফলে এই সড়কে চলাচল করা শতশত যানবাহন ও সাধারন মানুষ নিদারুণ কষ্টে যাতায়াত করছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় পাহাড়ী কাদাযুক্ত মাটি সড়কের উপড় গড়াগড়ি খাচ্ছে। অবস্থা এমন পর্যায়ে গিয়ে ঠেকেছে যে কোন সময় বড় দূর্ঘটনা ও সারাদেশের সাথে সড়ক যোগাযোগ বন্ধ হওয়ার আশংকা করছে সস্থানীয়রা। এই সড়কে সব চেয়ে বেশী কষ্ট ও দূভোগ পোহাতে হচ্ছে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সাজেকে আগত অগনিত পর্যটকদের। সড়কের বড় বড় গর্তে গাড়ী আটকে সড়কের দুই পাশে যানবাহনের দীর্ঘ লাইনে আটকে তীব্র গরমে নাজেহাল অবস্থায় পরতে হচ্ছে যাত্রীদের প্রতিনিয়ত।

এ বিষয়ে খাগড়াছড়ি সড়ক ও জনপথ বিভাগের দাবী টেন্ডার/দরপত্র আহবান করা হয়েছে, কিন্তু এ এরাকায় উন্নয়ন কাজ করতে হলে পাহাড়ি চারটি আঞ্চলিক সংগঠনকে চাঁদা দিতে হয়। সন্ত্রাসীদের চাঁদার জন্য কোন ঠিকাদার টেন্ডার নিচ্ছে না বলে সড়ক ও সংস্কার ও উন্নয়ন কাজ করা যাচ্ছে না।

এদিকে জনপ্রতিনিধি ও স্থানীয়দের দাবী সড়ক উন্নয়নে দায়িত্ব দেয়া হওক সেনাবাহিনীকে তাহলে দ্রুত্বতম সময়ে সড়কের উন্নয়নের পাশাপাশি কাজের গুনগত মানও ঠিক থাকবে। বাঘাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা কাঠ ব্যাবসায়ী সমিতির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন মামুন বলেন সড়কের বেহাল অবস্থার কারণে গাড়ী না আসায় বর্তমানে বাঘাইছড়িতে কাঠ ব্যাবসা বন্ধ হয়ে গেছে কবে নাগাত সড়ক মেরামত হবে আমাদের জানা নেই। এভাবে চলতে থাকলে অর্থনৈতিক ভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হবে বাঘাইছড়ি। সাজেক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নেলসন চাকমা বলেন সড়কের যে হাল হয়েছে তাতে যেকোন সময় যোগাযোগ ব্যাবস্থা ভেঙ্গে পড়তে পারে। এরই মধ্যে ভাঙ্গা সড়কের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে সাজেক পর্যটনের উপর।