বান্দরবানে চীবর দানোৎসব সম্পন্ন

543

p....4

 
বান্দরবান প্রতিনিধি, ২৮ নভেম্বর ২০১৫, দৈনিক রাঙামাটি : বান্দরবানে ছোঁয়াইং উত্তোলনের মধ্যদিয়ে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের মাসব্যাপী চীবর দানোৎসব সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার সকালে বান্দরবান শহরের উজানী পাড়া ও মধ্যম পাড়াসহ বিভিন্ন উপজাতীয় পলীøতে কঠিন চীবর দানোৎসবের সমাপনি অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি। এসময় বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা এবং জেলা ও দায়রা জজ শফিকুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বৌদ্ধ বিহারের কয়েক’শ ভিক্ষু বৌদ্ধ অধ্যুষিত পল্লীগুলোতে পায়ে হেঁটে লাইন ধরে ছোঁয়াইং উত্তোলন করেন। এ সময় বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী নারী-পুরুষ লাইনে দাঁড়িয়ে ভিক্ষুদের পিন্ড, চিবর, ছোয়াইং, অর্থ ও বিভিন্ন ফল দান করেন।

জানা যায়, পুণ্যবর্তী নারী বিশাখা সুর্যাস্তের পর থেকে শুরু করে পরের দিন সুর্যাস্তের আগে তুলা থেকে চরকায় সুতা তৈরি করে কাপড় বুনে সেই কাপড় রং করার পর গৌতম বুদ্ধকে দান করেছিলেন। কঠোর সাধনা ও অক্লান্ত পরিশ্রমের বিনিময়ে তৈরি করা রং কাপড়কে কঠিন চীবর বলা হয়।

আড়াই হাজার বছর আগের সেই পুরানো রীতিকে ধরে রেখে বান্দরবানের বৌদ্ধ নারীরা দলগতভাবে রাত জেগে কঠোর পরিশ্রম করে কাপড় বুনে তা পরের দিন বিকেলে বৌদ্ধ ভিক্ষুদের দান করে থাকেন। পুণ্য অর্জন ও পরকালে সুখ লাভের আশায় বৌদ্ধ নারীরা এই কঠোর সাধনায় মগ্ন হন। প্রতি বছরের মতো এ বছরও রাজগুরু বৌদ্ধ বিহারে কাপড় বুনন অনুষ্টানের আয়োজন করা হয়।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান