বান্দরবানে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে হাতি ও যুবকের মৃত্যু

384

॥ বান্দরবান প্রতিনিধি ॥
বান্দরবান পার্বত্য জেলার লামা উপজেলায় বিদ্যুৎতের তারে জড়িয়ে বুনো হাতি ও এক যুবকের মৃত্যু ঘটেছে। উপজেলার ফাঁিসয়াখালী ইউনিয়নে কুমারী এলাকায় শুক্রবার রাতে এ ঘটনা ঘটে জানান স্থানীয়রা। ঘটনা দুটি একই এলাকায় ঘটেছে বলে স্বীকার করেন ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জাকের হোসেন মজুমদার। লামা সদর বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা নুরে আলম হাফিজ জানান, ফাঁসিয়াখালী কুমারী এলাকার দুর্গম পাহাড়ি এলাকার খালখুইল্যা পাড়ায় একটি মৃত হাতি পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা খবর দেয়। ‘ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় একটি মৃত পুরুষ হাতি খালে পড়ে ছিল।

বিদ্যুতের তারে নাকি স্বাভাবিকভাবে মারা গেছে তা জানার জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।”
তিনি বলেন, শনিবার দুপুরে পার্শবর্তী ডুলহাজারা সাফারী পার্কের চিকিৎসক ও বন কর্মকর্তার একটি দল গিয়ে নমুনা সংগ্রহ করেছে। চিকিৎসক দলের ডা. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এই হাতি কোথাও আঘাত প্রাপ্ত হয়ে খালে গিয়ে পড়ে মারা যেতে পারে। ময়না তদন্তের রিপোর্ট পাওয়া গেলে হাতির মৃত্যুর কারন জানা যাবে।

এ নিয়ে গত সাত মাসে এই উপজেলায় ৪টি হাতি মারা গেছে বলে জানান বন বিভাগের কর্মকর্তা নুরে আলম। পরে একই এলাকা থেকে রাত আটটার দিকে স্থানীয় এক যুবকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। স্থানীয় ধারণা করছেন মৃত ওই যুবক হাতি মারার ফাঁদ বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মারা যেতে পারে।

মৃত আব্দুর রহিম (২১) ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নে ৪ নং ওয়ার্ডের ফাইন্নাঝিরি এলাকার মৃত রমিজ উদ্দিনের ছেলে। নাম না প্রকাশের শর্তে স্থানীয় কয়েকজন জানান, মৎস্য প্রজেক্ট ও আম বাগান হাতির আক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে বিদ্যুতের তারের ফাঁদ পাতে এলাকার এক ধানচাষী। গতকাল রাতে গরু ফিরে না আসায় খুঁজতে গিয়ে রহিম বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে মারা যেতে পারে। লামা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মাসুদ সিকদার জানিয়েছেন, যুবকের লাশ প্রাথমিক সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য বান্দরবান সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।