ভারত-মায়ানমারের সাথে বাণিজ্য ও সুসম্পর্ক বৃদ্ধির লক্ষে তিন পার্বত্য জেলায় চারটি স্থল বন্দর স্থাপন করা হবে

254

স্টাফ রিপোর্ট- ১০ মার্চ ২০১৭, দৈনিক রাঙামাটি: ভারত ও মিয়ানমারের সাথে বাণিজ্য বৃদ্ধির পাশাপাশি আত্মসামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে ৪টি স্থল বন্দর স্থাপন করা হবে। বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার ঘুমধুম, চাকঢালা এবং রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়িতে বন্দরগুলো স্থাপিত হবে। তাতে করে বাংলাদেশ-মিয়ানমার ও ভারত সীমান্তের মানুষের মধ্যে সুসম্পর্ক গড়ে উঠবে। সীমান্তসহ আশপাশের কয়েক লাখ মানুষ উপকৃত হবে। আজ শুক্রবার সকালে বান্দরবান জেলার ঘুমধুম ইউনিয়নে সম্ভাব্য সীমান্ত স্থল বন্দর পরিদর্শন কালে নৌ-পরিবহন মন্ত্রী শাহজাহান খাঁন এসব কথা বলেন।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব অশোক মাধব রায়, স্থল বন্দর কর্তৃুপক্ষ চেয়ারম্যান মো. আলাউদ্দিন ফকির, বান্দরবান জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, বান্দরবান পৌর সভার মেয়র ইসলাম বেবী, বান্দরবান জেলা প্রশাসক দীলিক কুমার বণিক, কক্সবাজার জেলা প্রশাসক আলী হোসেন, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস,এম সরওয়ার কামাল, থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এএইচএম তৌহিদ কবির, উখিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ আবুল খাইর, নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ যুগ্ম আহ্বায়ক তসলিম ইকবাল চৌধুরী, সদস্য সচিব মো. ইমরান মেম্বার, ঘুমধুম ইউপি চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আজিজ, সাবেক চেয়ারম্যান দীপক বড়ুয়াসহ বিভিন্ন শ্রমিক ফেডারেশন ও আওয়ামীলীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বান্দরবান  আসনের সংসদ সদস্যের প্রতিনিধি আলহাজ খায়রুল বাশার।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরো প্রধান।