ভাষানটেক পুনর্বাসন প্রকল্পে ফ্লাট বঞ্চিত মালিকদের সংবাদ সম্মেলন

459

স্টাফ রিপোর্ট- ২৯ জুলাই ২০১৭, দৈনিক রাঙামাটি :   আজ ২৯ জুলাই ২০১৭, বেলা ১১টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে ভাষানটেক পুনর্বাসন প্রকল্পের বি-টাইপ ফ্ল্যাটের মালিকানা বুঝে পেতে প্রকল্পের বঞ্চিত এক হাজার ২০৭ জন আবেদনকারী সংবাদ সম্মেলন করেছেন। তাঁরা অভিযোগ করেছেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতার কারণে প্রকল্পের কাজ ১০ বছরে শেষ হয়নি। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ফ্ল্যাটের আবেদনকারীরা প্রধানমন্ত্রীর সদয় সহানুভূতি কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ভূমি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ঢাকা মহানগরীর ছিন্নমূল বস্তিবাসী ও নিম্নবিত্তদের পুনর্বাসনের জন্য ৩৯৫ বর্গফুট আয়তন বিশিষ্ট ১০ হাজার ফ্ল্যাটের পরিকল্পনা করা হয়েছিল। সরকারি জমিতে বহুতল বিশিষ্ট ভবনে এ পুনর্বাসন প্রকল্প করার পরিকল্পনা করা হয়। ২০০৭ সালে সরকার প্রকল্পের কাজ শুরু করলে প্রথমে ৩ লাখ ৫৫ হাজার টাকায় এ ফ্ল্যাটগুলো দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ২০১০ সাল পর্যন্ত সেখানে কেউ কেউ ৬ লাখ, কেউ ৭ লাখ, কেউ সাড়ে ৭ লাখ টাকা পরিশোধ করেছে। সে সময় প্রকল্প বাস্তবায়নকারী মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছিল লিখিতভাবে ফ্ল্যাট বুঝিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু দেওয়া হয়নি।

ফ্ল্যাট বঞ্চিত মো. হারুনূর রশিদ বলেন, ২০০৭-২০১০ সাল পর্যন্ত ফ্ল্যাটের জন্য আবেদনকারীরা ৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা মূল্যের ফ্ল্যাট পেতে ৭ লাখ পর্যন্ত পরিশোধ করেন। ২০১০ সালে সরকার ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাস্তবায়নকারী ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান এনএসপিডিএলের সঙ্গে তৎকালীন সরকারের সুসম্পর্ক না থাকায় চুক্তি বাতিল করে এবং নির্মাণকাজ বন্ধ হয়ে যায়।
এর পাঁচ বছর পর ২০১৫ সালের জুলাই মাসে ভূমি মন্ত্রণালয় থেকে একটি চিঠির মাধ্যমে ফ্ল্যাটের জন্য টাকা পরিশোধ করা আবেদনকারীদের বলা হয় আরও ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা পরিশোধ করলে এক বছরের মধ্যে তাঁদের কাছে ফ্ল্যাট বুঝিয়ে দেওয়া হবে। কিন্তু দুই বছর পার হয়ে গেলেও প্রকল্পে ফ্ল্যাট তৈরির কোনো কাজ না দেখে ফট¬া মালিকরা হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েন।

তিনি বলেন, ফ্ল্যাটগুলো বুঝে পাওয়ার জন্য তাঁরা গত ২ বছর ধরে ভূমি মন্ত্রণালয় সরকারের কাছে দাবি জানিয়ে আসছেন। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার চেষ্টা করেছেন কিন্তু পাননি। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে ফ্ল্যাটের আবেদনকারীরা প্রধানমন্ত্রীর সদয় সহানুভূতি কামনা করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন জান্নাতুল ফেরদাউস, মো. শাহজাহান ভূঁইয়া, আ. খালেক, মো. শফিকুর রহমান। সংবাদ সম্মেলন শেষে ভাষানটেক পুনর্বাসন প্রকল্পের বি-টাইপ ফ্ল্যাট বঞ্চিত আবেদনকারীরা ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সামনে একটি মানববন্ধন করে। পরে তারা জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আরো একটি মানববন্দন করেন।


পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরো প্রধান।