মাটিরাঙ্গায় ৭ ইউপিডিএফ কর্মী আটক

618

P......6

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি , ১ ডিসেম্বর ২০১৫, দৈনিক রাঙামাটি :  খাগড়াছড়ির চাঁদাবাজির অভিযোগে রামগড়ের জরিচন্দ্র পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২৫ রাউন্ড এ্যানোমেসন, ১টি ম্যাগজিন, নগদ টাকা ও চাঁদা আদায়ের রসিদসহ পাহাড়ের অনিবন্ধিত স্বশস্ত্র আঞ্চলিক রাজনৈতিক সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট-ইউপিডিএফ’র দুই চাঁদাবাজ ও অবরোধকে সামনে রেখে নাশকতা সৃষ্টির অভিযোগে মাটিরাঙ্গার হৃদয় মেম্বার পাড়া এলাকা থেকে ইউপিডিএফ’র সহযোগি সংগঠন পিসিপি‘র পাঁচ নেতাকর্মীসহ ৭ সন্ত্রাসীকে আটক করেছে নিরাপত্তাবাহিনী। সোমবার বিকালে ও রাতে পরিচালিত পৃথক পৃথক অভিযানে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন, ইউপিডিএফ কর্মী দীন কুমার ত্রিপুরা (২৫) ও অন্ন কুমার ত্রিপুরা (৫০) এবং পিসিপি’র মাটিরাঙ্গা কলেজ শাখার সভাপতি দীপঙ্কর ত্রিপুরা (২০), কর্মী নয়ন চাকমা (২০), প্রদীপ ত্রিপুরা (২১), সুরেশ চাকমা (২০) ও বরোদজয় ত্রিপুরা (২১)।সেনাবহিনী সূত্রে জানা যায়, চাঁদাবাজীর গোপন সংবাদ পেয়ে রামগড় উপজেলার জরিচন্দ্র পাড়ায় অভিযান চালিয়ে ঐ দুই ইউপিডিএফ কর্মীকে আটক করতে সক্ষম হয় সেনা সদস্যরা। এসময় তাদের অপর দুই সহযোগী পালিয়ে গেছে। পরে আটককৃতদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে একটি বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে ২৫ রাউন্ড তাজা গুলি, ১টি ম্যাগজিন, নগদ টাকা, চাঁদা আদায়ের রসিদ, একাধিক মোবাইল ফোন ও সিম উদ্ধার করা হয়েছে।

এছাড়া অবরোধে নাশকতা সৃষ্টির পরিকল্পনাকালে রাতে মাটিরাঙ্গা উপজেলার হৃদয় মেম্বার পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে পিসিপি’র পাঁচ নেতাকর্মীকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ঐ এলাকায় মন্দিরের পার্শ্ববর্তী একটি বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে গুলতি, মার্বেল, একাধিক মোবাইল ফোন ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সম্বলিত একটি ল্যাপটপ (নেট বুক) উদ্ধার করা হয়। রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাঈন উদ্দিন খান জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে দুই ইউপিডিএফ কর্মীকে থানায় হস্তান্তর করেছে সেনাবাহিনী। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। এদিকে আটক পাঁচ পিসিপি কর্মীকে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মাটিরাঙ্গা থানায় হস্তান্তর করা হবে বলে নিশ্চিত করেছে মাটিরাঙ্গা সেনা জোন।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান