রাঙামাটিতে আত্মপ্রকাশ করলো রিসোর্ট ওনার্স এসোসিয়েশন

348

পর্যটন শহর রাঙামাটিতে রিসোর্ট ওনার্স এসোসিয়েশন নামে নতুন একটি সংগঠনের আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। বৃহস্পতিবার (৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় সংগঠন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়।া রিসোর্ট মালিকদের নিয়ে অনুষ্ঠিত এ সভায় আলাপ-আলোচনা শেষে রিসোর্ট ওনার্স এসোসিয়েশন, রাঙ্গামাটি নামের সংগঠনটি যাত্রা শুরু করে। বার্গি লেক ভ্যালীর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুমেত চাকমার আহবানে এবং সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত এ সভায় রাঙামাটিতে পর্যটন শিল্প বিকাশের সম্ভাবনা বিশদ আলোচনা করা হয়।

এ চাড়াও সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি ও স্থানীয় জনগোষ্ঠীর প্রত্যাশার অনুকূলে পর্যটন শিল্পের বিকাশে করণীয়; পার্বত্য চট্টগ্রামের পর্যটন সেক্টরের সাথে সম্পৃক্ত বিভিন্ন এক্টরস-ফ্যাক্টরসদের ভূমিকা; রিসোর্ট মালিকদের মধ্যকার সমন্বয় রক্ষা ও পারস্পরিক সহযোগিতার আদান প্রদান; বিভিন্ন চ্যালেঞ্জর সমবেতভাবে মোকাবেলা; প্রশাসনের সাথে সমন্বয় ও যোগাযোগ রক্ষা ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করা হয়। আলোচনা শেষে অংশগ্রহণকারীদের সর্বসম্মতিক্রমে ৯ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠনের মাধ্যমে রিসোর্ট ওনার্স এসোসিয়েশন, রাঙ্গামাটির আতœপ্রকাশ ঘটে এবং এর সার্বিক কার্যক্রমের সুচনা করা হয়।

কমিটিতে সভাপতি করা হয়েছে জুমকিং লেক রিসোর্টর স্বত্বাধিকারী তনয় দেওয়ানকে এবং সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে বার্গি লেক ভ্যালী এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর সুমেত চাকমাকে; আর এতে কোষধ্যক্ষ হিসেবে রয়েছেন ইজোর রেষ্টুর্যামন্ট এন্ড রিসোর্ট এর স্বত্বাধিকারী ম্যাকফিল চাকমা। এ ছাড়া কমিটিতে সদস্য হিসেবে রয়েছেন ললিত সি. চাকমা, ম্যানেজিং ডিরেক্টর, রাইন্যা টুগুন রিসোর্ট লিমিটেড; হিটলার দেওয়ান, স্বত্বাধিকারী, গাঙপাড় গার্ডেন রিসোর্ট; রনজিত তঞ্চঙ্গ্যা রাজীব, স্বত্বাধিকারী, টং ইকো রিসোর্ট; প্রিয়দর্শী চাকমা, স্বত্বাধিকারী, বড়গাঙ রিসোর্ট; প্রগতি চাকমা, স্বত্বাধিকারী, ডিভাইন লেক আইল্যান্ড রিসোর্ট; ও অতীশ চাকমা, স্বত্বাধিকারী, বেরান্যে লেকশোর ক্যাফে এন্ড রিসোর্ট।

সংগঠনের কার্যক্রম সুচারুরূপে সম্পাদন এবং উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য অর্জনে সর্বস্তরের লোকজনের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে এবং স্থানীয় অধিবাসীদের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মান বজায় রেখে পর্যটন শিল্পের প্রসার ঘটানোর লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি