রাঙামাটিতে করোনা টিকার প্রথম ধাপ শেষ, টিকা পেলো ৫ হাজার ৫০০

390

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥
সারাদেশের ন্যায় রাঙামাটিতেও পাঁচদিন চলে টিকা প্রদান কার্যক্রম, সকাল থেকে সদর হাসপাতালসহ ১০টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং সেনানিবাস এলাকায় বেলা ৩টা পর্যন্ত চলে টিকা প্রদানের কার্যক্রম। পঞ্চমদিন রাঙামাটিতে এসে দায়িত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)’র নির্বাহী চেয়ারম্যান সচিব পবন চৌধুরী ও তার স্ত্রী টিকা গ্রহণ করেন। প্রথম ডোজের টিকা না থাকায় বেশী ভাগ মানুষকে সদর হাসপাতাল থেকে ফেরত যেতে হয়।

জানা গেছে, রাঙামাটিতে ১২শ ভ্যাকসিন ডোজ দেয়া হয়, এতে একটি ১০জন করে দেয়ার কথা থাকলেও ৯জন করে দেয়া সম্ভব হয়েছে, রাঙ্গামাটি সদরসহ ১০ উপজেলায় ৫হাজার ৫০০জন মানুষ করোনার ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছে, এরমধ্যে পঞ্চমদিনে ১হাজার ৭২জনকে করোনার ভ্যাকসিন দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে রাঙামাটির সিভিল সার্জন ডা: বিপাশ খীসা জানান, প্রথম ডোজের টিকা দেয়া শেষ হয়েছে। বাকি যে ডোজগুলো রয়েছে সেগুলো দিয়ে দ্বিতীয় ডোজের টিকা দেয়া হবে। যে পরিমাণ রেজিষ্ট্রেশন হয়েছে, তার অর্ধেক টিকাও আসেনি। তবে এটি চলমান প্রক্রিয়া। দ্বিতীয় ডোজের টিকা আসলে বাকিদের পর্যায়ক্রমে টিকা দেয়া হবে।

রাঙ্গামাটির দায়িত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)’র নির্বাহী চেয়ারম্যান সচিব পবন চৌধুরী বলেন, বিশ্বের অনেক উন্নত রাষ্ট্র এখনো টিকা দিতে পারেনি, অথচ মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতায় বাংলাদেশের সব এলাকার মানুষ টিকা পেয়েছেন এবং টিকা নিচ্ছেন। রাঙ্গামাটিতে টিকার সংকটের বিষয়টি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে জানিয়ে যাতে এলাকার সবাই টিকা পায় সে ব্যবস্থা নিবেন বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি।