রাঙামাটিতে পিসিসিপি কেন্দ্রীয় কমিটির অভিষেক

188

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

পার্বত্য চট্টগ্রাম ছাত্র পরিষদ (পিসিসিপি) কেন্দ্রীয় কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান উপলক্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে শহরের বনরূপা চৌমুহনী থেকে বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা করে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে শিল্পকলা একাডেমিতে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

অনুষ্ঠানে পিসিসিপি কেন্দ্রীয় সভাপতি শাহাদাৎ হোসেন কায়েশের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মো: হাবীব আজমের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন- পার্বত্য চট্টগ্রাম নাগরিক পরিষদ পিসিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারম্যান কাজী মজিবর রহমান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন পিসিএনপি কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব আলমগীর কবির, যুগ্ম সম্পাদক ও রাঙামাটি জেলা সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ সোলায়মান, আইন বিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট আলম খান, স্থায়ী কমিটির সদস্য আব্দুল মজিদ, রুহুল আমিন ও আব্দুল কাইয়ুম, রাঙামাটি জেলা সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী জালোয়া, পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি আসাদুল্লাহ আসাদ, পিসিসিপি কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রাসেল মাহমুদ, বান্দরবান জেলা সভাপতি আসিফ ইকবাল, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি আল আমিন, প্রচার সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ও যুগ্ম সম্পাদক তারেক আহম্মেদ সহ পিসিসিপির বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, পাহাড়ের দুর্গম ও প্রতিকূল পরিস্থিতিতে বসবাস করেও পার্বত্য চট্টগ্রামে বাঙালি জনগোষ্ঠী কোটা-সুবিধা থেকে বঞ্চিত। পার্বত্য বাঙালিরা শিক্ষা, কর্মসংস্থান, আর্থিক ও সামাজিক অবস্থানের দিক থেকে অনেক পিছিয়ে। পার্বত্যাঞ্চলের প্রেক্ষাপটে বাঙালিদের জন্য কোটা-সুবিধা অর্ধেক হওয়া উচিত। বাঙালিরা এখানে অবহেলিত, প্রান্তিক এবং দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক। এজন্য পিছিয়ে পড়া ও রক্ষিত পাহাড়ি বাঙালিদেরও কোটার আওতায় আনতে হবে। এছাড়াও বক্তারা পিসিসিপি’র ৭দফা দাবি তুলে ধরেন। আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।