রাঙামাটিতে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন এবং গেইট ও সীমানা প্রাচীর ভেঙে লুটপাট

296

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥
রাজনৈতিক প্রভাবশালীর ছত্রছায়ায় এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী, ভুমিদস্যু কর্তৃক সীমানা প্রচীর গুড়িয়ে দিয়ে লুটপাট ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে স্বপরিবারে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভুক্তভোগী মো.আলী জিন্নাহ(৭০)। মঙ্গলবার দুপুরে রাঙামাটি প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ বয়োবৃদ্ধ মো. আলী জিন্নাহ সংবাদ সম্মেলনে মানবতার জননী প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে বলেন, এলাকার চিন্হিত সন্ত্রাসী.ভুমিদস্যু মো: ইলিয়াছ , মো: শাহজাহান গং ১০/১৫জন সংঘবদ্ধ হয়ে গত সোমবার সকাল ১০টার সময় মধ্যযুগীয় কায়দায় আমার বাড়ীর সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে লুটপাট ও স্ত্রী শাহানাজ বেগম(৬০), কন্য রেহানা আক্তার(৩০) ও পুত্রবধু সুমা বেগম(২৮)’র উপর চরম নির্যাতন চালায়।

বৃদ্ধের কন্যা চোখের পানি ছেড়ে দিয়ে বলেন আমি বাবার বাড়িতে বেড়াতে এসে হামলার শিকার। তাদের বর্বরতা থেকে নারী শিশু কেউ বাদ যায়নি। গেটে ভেঙ্গে তারা পিকআপে করে সেই গেইটিিটও নিয়ে যায়। এসময় বাড়িতে কোনো পুরুষ মানুষ না থাকায় আমরা প্রতিরোধ করতে পারিনি। বৃদ্ধ বলেন, প্রতিপক্ষগণ রাজনৈতিক এক ২জন নেতার ছত্রছায়ায় আমার সম্পত্তি দখলের জন্য বারবার হামলা, মামলাসহ বিভিন্নভাবে নির্যাতন করে আসছে। আমি বয়োবৃদ্ধ এবং অসহায় মানুষ হিসেবে বিশ^মানবতার জননী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

আমি আইনিভাবে গত সোমবার রাঙামাটি কোতয়ালী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলেও পুলিশ মামলার বিষয়ে ইতিবাচক সাড়া দেয়নি। আমার প্রতিপক্ষ ধনেজনে বলিয়ান এবং হামলা-মামলায় পারদর্শী। আমি আমার পরিবার নিয়ে এখন ভয়ের মধ্যে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। কাপ্তাই হৃদের উদ্বাস্তু প্রজা হিসেবে আমার বি ফরমের জায়গা এভাবে বেহাত হয়ে যাওয়ার বিষয়টি এই আধুনিক যুগেও কিভাবে সম্ভব তা আমাদের বুঝে আসছে না।

তারা বলেন, প্রতিপক্ষ বিশেষ একটি মহল দ্বারা লালিত-পালিত। সংঘবদ্ধ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে রেখেছে। এই চক্রটির পেছনের মদদদাতারা এলাকার বেশ কিছু মানুষের জায়গা বেহাত করেছে। এছাড়াও তারা বিভিন্ন জনের চৌহদ্দিতে খাস জমি রয়েছে দাবী করে একজনের সাথে অন্যজনকে লেলিয়ে দিয়ে মাঝখান থেকে বিশেষ মহলটি সুবিধা ভোগ করে থাকে। বর্তমান সরকারের সময়ে ব্রাক্ষণটিলা ব্রিজটিও আমার জায়গার উপর স্থিত। আমার বি-ফরম এর জায়গা ভুমিদস্যুতার মাধ্যমে চক্রটির অনেকে বেহাত করেছে। আমি বর্তমান মাথা গোজার ঠাঁইটি রক্ষায় সকলের সহযোগিতা চাই।

এ সময় সংবাদ সম্মেলণে অন্যন্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন মো. জয় ও নির্যাতিতা রেহানা বেগম, সোমা আক্তার। আরো উপস্থিত ছিলেন, মো. আলী জিন্নাহ’র স্ত্রী নির্যাতিতা শাহনাজ বেগম (৬০)।