রাঙামাটিতে সমকালের সুহৃদ সমাবেশের

467

p....4

স্টাফ রিপোর্টার, ১৯ নভেম্বর ২০১৫, দৈনিক রাঙামাটি : বুধবার রাঙামাটিতে সমকাল-সুহৃদ সমাবেশের উদ্যোগে এবং  ব্র্যাক ও মায়া অ্যাপস্’র সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘জানালাটা খুলে দাও’ শীর্ষক এক অংশগ্রহনমূলক কর্মশালা। আশিকা মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্র হল রুমে আয়োজিত কর্মশালায় প্রধান অতিথি ও উদ্বোধক ছিলেন রাঙামাটি সরকারি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ প্রফেসর বাঞ্চিতা চাকমা। সুহৃদ সমাবেশ রাঙামাটি জেলা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রবীন সাংবাদিক সুনীল কান্তি দে, রাঙামাটি পৌর কাউন্সিলর সঙ্গীত শিল্পী কালায়ন চাকমা, নারী অধিকার কর্মী নুকু চাকমা ও সমকালের সহ-সম্পাদক মোঃ আসাদুজ্জামান। উপস্থিত ছিলেন সুহৃদ সমাবেশ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সমুদ্র প্রবাল, মায়া অ্যাপস্’র প্রতিনিধি মনিবুর রহমান রিপন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সমকালের রাঙামাটি অফিসের স্টাফ রিপোর্টার সত্রং চাকমা। নারীর প্রতিদিনের স্বাস্থ্য, আইন ও মনোসামাজিক বিভিন্ন বিষয়ে তথ্যসেবা সম্পর্কে কর্মশালায় রাঙামাটি শহরের বিভিন্ন কলেজের ৬০ জন কলেজ শিক্ষার্থী প্রানবন্ত আলোচনায় অংশ নেন। এসময় কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীরা মায়া অ্যাপস সম্পর্কে বিভিন্ন প্রশ্ন ও তাদের স্বপ্ন তুলে ধরেন। অনুষ্ঠানে  কিভাবে তথ্য সেবা পাওয়া যাবে তার ধারণা তুলে ধরে ছিল ভিডিও প্রদর্শনী এবং কর্মশালা শেষে অংশগ্রহনকারীদের মাঝে সমকালের সৌজন্য সংখ্যা ও উপহার দেয়া হয়।

কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য মায়া অ্যাপস সম্পর্কে পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশনে মাধ্যমে উপস্থাপনায় করা হয়। এসময় ব্র্যাক মায়া ওয়েব সাইট থেকে নারীর অধিকার ও বিভিন্ন সামাজিক বিষয়ে প্রবন্ধ-নিবন্ধ-বিশেষজ্ঞ অভিমতসহ প্রয়োজনীয় তথ্য ছাড়াও পেশাগত তথ্য, মনোসামাজিক কাউন্সেলিং সেবা, বিভিন্ন আইনি পরামর্শ দেয়া হবে। মিলবে নারীর প্রজনন স্বাস্থ্য ও শিশু পরিচর্যা, অভিমত অনুভূতি প্রকাশের সুবিধা, নারীর ক্ষমতায়ন ও তথ্য অধিকার সংক্রান্ত যেকোন জিজ্ঞাসার উত্তরও। কিশোরী ও নারীর ক্ষমতায়ন ও তথ্য অধিকার নিশ্চিত করতে এ ওয়েবসাইটটি সহায়ক হবে। নাম পরিচয় গোপন রেখেও ৪৮ ঘন্টার মধ্যেই প্রশ্নের উত্তর পাওয়া যাবে। প্রশ্ন করা যাবে ২৪ ঘন্টাই। ইমেইল একাউন্ট, ইন্টারনেট কানেকশন আর জানার আকাংখা এ তিনটির সমন্বয়ে মিলবে জীবনের না বলা হাজারো প্রশ্নের উত্তর। মায়া অ্যাপসে যুক্ত হওয়া যাবে তিনভাবে, এনড্রয়েড, সাধারণ ফিচার মোবাইল ও কম্পিউটারের মাধ্যমে। নির্দিষ্ট তথ্য পুরন করে নিবন্ধন করেই ব্যবহার করা যাবে। নারী ও মেয়েদের জন্য বিশেষায়িত হলেও যে কেউ নাম পরিচয় গোপন রেখেও তথ্য সেবা নিতে পারবে।

কর্মশালার প্রধান অতিথির বক্তব্যে রাঙামাটি সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ বাঞ্চিতা চাকমা বলেন, পুরুষতান্ত্রিক পরিবার ও সমাজব্যবস্থা কার্যকর থাকায় জন্মানোর পর থেকেই কন্যা শিশুরা নিজেদের পরিবারেই বৈষম্যের শিকার হয়ে আসছে। তাই নিজেদের ঘর থেকেই বঞ্চিত হওয়ার প্রতিবাদ করা উচিৎ কন্যা শিশুদের। আশাকরি মায়া অ্যাপস ব্যবহারে সুফল পাবে। জানালাটা খুলে ঘরকে যেমন নির্মল বাতাস ও আলোকময় করা যায় তেমনি জীবনকে আলোকময় সজীব করতে মায়া অ্যাপস কার্যকরী ভূমিকা রাখবে।
পাহাড়ের প্রবীন সাংবাদিক ও সংগঠক সুনীল কান্তি দে বলেন, আমাদের অনেক কিছু জানার রয়েছে। আমরা পাহাড়ের পিছিয়ে পড়া মানুষ। পার্বত্য চট্টগ্রাম সম্পর্কে বিদ্যমান যে নেতিবাচক ধারনা রয়েছে তা ইতিবাচক করতে নতুন প্রজন্মকে দায়িত্ব নিতে হবে।

কর্মশালার সঞ্চালক ও সমকালের সহ সম্পাদক মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, দেশের মাটি ও মানুুষের কাছে দায়বদ্ধতার কারণে দৈনিক সমকাল পত্রিকার বাইরে থেকেও এধরণে সামাজিক কাজ করছে। সব অসংকোচ প্রকাশের দুরন্ত সাহস কেবল সমকালই দেখাতে পারছে। ইতোমধ্যেই মায়া অ্যাপসের “জানালাটা খুলে দাও” কর্মসুচি দেশের নারী শিক্ষার্থীদের দৈনন্দিন শারীরিক-মানসিক সমস্যা মোকাবেলার একটি নির্ভরযোগ্য ঠিকানায় পরিণত হয়েছে।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান, ঢাকা ব্যুরোপ্রধান।