রাঙামাটির ১০ যুবক ঘুরতে গিয়ে ভারতের ত্রিপুরা কারাগারে

84

॥ এম.নাজিম উদ্দিন ॥

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে আয়োজিত কুম্ভমেলায় বেড়াতে গিয়ে বিএসএফের হাতে আটক হয়েছেন বাংলাদেশি ১০ যুবক। পরে ওই যুবকদের ভারতীয় আদালতের মাধ্যমে ২৫ দিনের কারাদন্ড দিয়ে তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।

তারা হলেন, রাঙামাটির লংগদু উপজেলার আটারকছড়া ইউনিয়নের আল আমিন, মো.সুমন, আব্দুস সালাম, মো.বেলাল, মো. শামসুদ্দিন, আব্দুল জলিল, মো.রবিউল, মো. সোহেল, মো.হাসান ও মো. ইসমাইল। তাদের সকলেরই বাড়ি একই ইউনিয়নে। পৌষ সংক্রান্তি মেলা উপলক্ষে প্রতি বছর খাগড়াছড়ির পানছড়ির পাহাড়-জঙ্গল পাড়ি দিয়ে অনেক বাংলাদেশিরা মেলায় বেড়াতে যান।

আটারকছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অজয় চাকমা মিত্র যুবকদের আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, বিনা পাসপোর্টে ভারতে অনুপ্রবেশের দায়ে আমার ইউনিয়নের ১০ যুবককে আটক করে ২৫ দিনের কারাদন্ড দিয়েছে ভারতীয় আদালত। এর আগে শুক্রবার তাদের আটক করেছিল ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ।

ওই যুবকদের সঙ্গে ভারতে গমনকারী আল আমিনের ভাই মো.মনির হোসেন বলেন, ত্রিপুরা রাজ্যের গোমতী জেলার তীর্থমুখ এলাকায় গোমতী নদীর উৎসস্থল ডুম্বুর লেকে পৌষ সংক্রান্তি উপলক্ষে দুই দিনব্যাপী মেলায় প্রতি বছর বাংলাদেশ থেকে অনেকে যায়। এবার মেলা দেখতে গত শুক্রবার আমরা ৩২ জন গিয়েছিলাম। সেখানে একরাত থাকার পর দুই গ্রুপে আলাদা হয়ে দেশে ফিরছিলাম। ওরা ১০ জন একসঙ্গে ছিল। আমরা ফিরতে পারলেও তারা বিএসএফের হাতে ধরা পড়ে যায়। শনিবার রাতে জানতে পারি,বিএসএফ তাদের ভারতীয় পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে। পরে ২৫ দিনের কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়েছে তাদের। বর্তমানে তারা গন্ডাঝড়া কারাগারে আছে বলে আমার ভাই জানিয়েছে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, প্রতি বছর ভারতীয় রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত এমনকি বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন পৌষ সংক্রান্তি উৎসবে যোগ দেন। লংগদু থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারুন রশীদ এর কাছে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমাদের কাছে এরক কোন তথ্য নেই। কেউ কিছুই জানায়নি।