শিক্ষার বিকাশ ঘটিয়ে পাহাড়ি-বাঙালি সম্প্রদায় ভেদাভেদ দূর করতে হবেঃ নিখিল কুমার চাকমা

395

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

‘পাহাড়ে সর্বস্তরের মানুষের মাঝে শিক্ষার বিকাশ ঘটিয়ে পাহাড়ি বাঙালি ভেদাভেদ দূর করতে হবে এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে অসাম্প্রদায়িক চেতনার উন্মেষ আনতে হবে’ বলে মন্তব্য করেছেন পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা। তিনি বলেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি থাকলেই এলাকায় উন্নয়ন তরান্বিত হবে এবং সাধারণ মানুষের জীবন যাত্রার মান বাড়বে।

৯ অক্টোবর (শনিবার) সকালে বগাছড়ি মারকাজুল মাদ্রাসা ও নানিয়ারচর ইসলাম পুর দাখিল মাদ্রাসার উর্ধমূখী সম্প্রসারণ নির্মাণ কাজের ভিত্তি স্থাপন শেষে নানিয়ারচর ইসলামপুর দাখিল মাদ্রাসায় মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের আয়োজনে সংবর্ধনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সংবর্ধনা সভায় নানিয়ারচর ইসলাম পুর দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি আব্দুল কালাম মল্লিকের সভাপতিত্বে ও মাদ্রাসা সুপার মোঃ শহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য ও জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি, হাজী কামাল উদ্দিন, জেলা পরিষদের সদস্য প্রিয়নন্দ চাকমা ও ইলিপন চাকমা, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব হাওলাদার প্রমুখ।

সংবর্ধনা সভায় পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা আরো বলেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত রেখে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাসরত সকল সম্প্রদায়ের সামগ্রীক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন ঘটানোই হবে আমার মুল চ্যালেঞ্জ। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে যে গুরুত্বপুর্ণ দায়িত্ব দিয়েছে তা অক্ষরে অক্ষরে পালন করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। আর আমি দায়িত্ব নেয়ার পর পরই পার্বত্য চট্টগ্রামের প্রতিটি মানুষের ভাগ্যের উন্নয়নে কাজ করে চলেছি। পার্বত্য এলাকার যেসব উন্নয়ন প্রকল্প রয়েছে সেগুলো যাতে দ্রুত দৃশ্যমান হয় তার জন্য যা যা করার প্রয়োজন সবই করবো। এসময় তিনি ইসলামপুর হতে বটবিল পাড়া সড়ক উন্নয়ন ও মাদ্রাসার আবাসিক ভবন নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন।