শুক্রবার শহরজুড়ে একযোগে চলবে ক্যাম্পেইন> একজন “মা’কে বাঁচাতে রাঙামাটির সকল সামাজিক সংগঠন একাট্টা

307

॥ স্টাফ রিপোর্টার ॥

মা শব্দটি কতটা মধুর তা বোধকরি বলার অপেক্ষা রাখে না। তবে মায়ের মমতা কতাটা প্রীতিময়; তা যারা মা হারাননি তাদের বুঝতে একটু কষ্ট হতেও পারে। মাতৃ¯েœহ, মায়ের মমতা একজন মানুষের জীবনের গতি-প্রকৃতিকে কিভাবে পাল্টে দিতে পারে তার ভুরি ভুরি উদাহরণ রয়েছে দেশময়-বিশ্বব্যাপী। সেই মায়ের মমতা হারাতে বসেছে রাঙামাটির দু’টি অবুঝ শিশু। কিন্তু এই শিশুদের মাতু¯েœহ টুকু বাঁচিয়ে রাখতে চলছে তরুণ সমাজের প্রণান্ত প্রচেষ্টা।

হ্যা রাঙামাটি শহরের আসামবস্তি এলাকার সেই অসুস্থ জননী জুহি আহমেদ ঝুনুর কথাই এখানে বলা হচ্ছে। যাকে সুস্থ করে তুলতে গত মাস দুয়েকব্যপী রাঙামাটি চষে ফিরছেন একদল উদ্যমী তরুণ। এবার তাদের আহ্বানেই সাড়া দিয়ে রাঙামাটি শহরের সকল সামাজিক ও তরুণদের সংগঠন একাট্টা হয়ে মাঠে নামছে চিকিৎসা ক্যাম্পেইন তথা তহবিল সংগ্রহের অভিযানে।

তারা জানিয়েছে শুক্রবার রাঙামাটি শহরে সকল এলাকা ছোট ছোট ব্লকে ভাগ করে সকল সামাজিক সংগঠনের সমন্বয়ে গঠিত ৩০ স্বেচ্ছাসেবি গ্রুপ একযোগে তহবিল সংগ্রহের কাজে নামবে। ইতোমধ্যে তারা সমন্বিতভাবে প্রায় সকল পরিকল্পনা সম্পন্ন করেছে। বিশাল এই কর্মযজ্ঞের চুড়ান্ত বিন্যাস তথা কর্মবন্টনের জন্য আজ বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় রাঙামাটির কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্তরে অনুষ্ঠিত হবে আরো একটি পরামর্শ সভা। সেখান থেকেই চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত শেষে শুক্রবার সকাল ৯টায় তারা একযোগে নেমে পড়বে শহরময়। জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে তরুণ-তরুণী ও অভিজ্ঞজনদের সমন্বয়ে ৩০টি গ্রুপ একযোগে তহবিল সংগ্রহের জন্য বিভিন্ন এলাকায় যাবে। এর মধ্যে তবলছড়ি বাজার, বিজিবি ক্যাম্প এলাকা, স্বর্ণটিলা, মাঝের বস্তি, আসাম বস্তি, পুরাতন হাসপাতাল এলাকা। এদিকে রিজার্ভ বাজারের প্রধান সড়ক ও কাঁচা বাজার, লঞ্চঘাট ও মহসিন কলোনী, ইসলামপুর, শরিয়তপুর, পুরানপাড়া, ১নং ২নং পাথরঘাটা, পুরাতন হাসপাতাল এলাকা ও দোয়েল চত্তর। বনরূপায় শান্তিনগর, ফরেস্ট কলোনীও পৌরসভা কার্যালয় এলাকা, লেকার্স রোড ও কাঁঠালতলী, চম্পক নগর, হ্যাপীর মোড় ও মাতৃমৃন্দর এলাকা, কালিন্দীপুর ও হাসাপাতাল এলাকা। এ ছাড়া কলেজ গেইটের বাজার এলাকা, রাজবাড়ী এলাক, কেকে রায় সড়ক, দেবাশীষ নগর টিএন্ডটি এলাকা, টিটিসি রোড, ভেদভেদী-আমানতবাগ, রাঙ্গাপানি ও যুবউন্নয়ন অফিস এলাকা মিলিয়ে এই ৩০টি গ্রুপ কাজ করবে।

এ বিষয়ে এখনও যারা অবগত হননি অথচ এই মহৎকাজে অংশ গ্রহণ করতে ইচ্ছুক তাদের আজ বিকাল ৪টার পরামর্শ সভায় উপস্থিত থাকার অনুরোধ জানানো হয়েছে। সেখানে উপস্থিত থাকতে না পারলেও শুক্রবার নিজ নিজ সুবিধাজনক এলাকায় গিয়ে গ্রুপে যোগদান করা যাবে। প্রয়োজনীয় তথ্যের জন্য যোগাযোগের সেলফোন নংগুলো হলো ঃ ০১৮২০৩৪৬২৫৬ নুর তালুকদার মুন্না, ০১৬১০১০১০১৪ আহমেদ ইমতিয়াজ আজাদ, ০১৯২৫৫৭০৮৬৮ মাসুদ রানা রুবেল, ০১৮৩০০৫৫৭৭০ শহীদুল ইসলাম রাসেল, ০১৮২০৩০৩৪০৫নিপুমায়া ছেত্রী।

প্রসঙ্গত  রাঙামাটি শহরের মাঝেরবস্তি এলাকার বাসিন্দা এক ছোট প্রাইভেট চাকুরীজীবীর স্ত্রী জুহি আহমেদ ঝুনু কিডনী জনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে বর্তমানে মৃত্যুর প্রহর গুণছেন। তার দু’টি কিডনীই নষ্ট হয়ে গেছে। ভারতে গিয়ে অন্তত একটি কিডনী সংযোজন করতে গেলেও প্রায় ৩০ লক্ষ টাকার প্রয়োজন। তার দু’টি অবুঝ শিশু বর্তমানে মায়ের মমতা থেকে বঞ্চিত। বর্তমানে শেভরনে তার ফরটিসে ডাইলোসিস করছে। এক মেয়ে এক ছেলে। স্বামী অসুধ কোম্পানিতে চাকরি করে। ডাক্তার বলেছে তাকে একটি কিডনী দিতে পারলে উনি ঠিক হয়ে যাবে। আর কিডনী ট্রান্সপ্লান্ট করতে অনেক টাকার প্রয়োজন।

আবেদনে তরুণ সমাজ বলছে “আবারো একদিনে গোটা রাঙামাটি জুড়ে মানবতার ডাকে সাড়া দিয়ে একজন “মা” কে বাঁচানোর প্রক্রিয়ায় কাজ করতে চাই। অজ্ঞাত কারণে অনেক দিন এই রকম ক্যাম্পেইন থেকে দূরে ছিলাম কিন্তু সে “মা” এর দুটি অবুঝ শিশুর কান্নায় আবেদনে, তার বোনের অসহায়ত্ব দেখে আর থেমে থাকতে পারলাম না’; আমরা যে ডাকটি শুনতে পেয়েছি, আপনারা কি সে ডাকটি শুনতে পাচ্ছেন??

“যদি শুনে থাকেন, আর একটু খানি মায়ার সৃষ্টি হয় আসুন একযোগে কাজটি করি। আসুন যারা নিজেকে #প্রকৃত  স্বেচ্ছাসেবী মনে করি, সকল কিছু ভুলে গিয়ে এক কাতারে কাজ করে #ইতিহাস সৃষ্টি করি একযোগে। বিঃদ্রঃ এই সহায়তায় চাওয়ার ব্যাপারে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক মহোদয় অবগত আছেন। সকল আর্থিক সাহায্যর হিসাব উনার কাছে উপস্থাপন করে ভেরিফাই করে নেয়া হবে।