শেখ হাসিনার সরকার নারী সমাজের উন্নয়নে অভূতপূর্ব উদ্যোগ নিয়েছে : এমপি ফিরোজা বেগম চিনু

521

chinu mpp.1

আলমগীর মানিক, ১৮ জুলাই ২০১৬ : গণতন্ত্রের মানসকন্যা-জননেন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের নারী সমাজকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। নারী উন্নয়নে তিনি নিজ তত্ত্বাবধানে নারীবান্ধব বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়নের পাশাপাশি নারী ক্ষমতায়নেও প্রধানমন্ত্রী অভ’তপূর্ব উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু। তিনি বলেন, জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনার মহতি উদ্যোগের ফলেই আজকে আমাদের মেয়েরা বাংলাদেশ পুলিশ, সেনাবাহিনী সর্বোপরী সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি’র মতো বাহিনীতে বৈমানিক থেকে শুরু করে সীমান্ত পাহারায় চাকুরি করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন প্রথামবার ক্ষমতায় এসেছিলেন, তখনই তিনি ঘোষণা করেছিলেন দেশে অর্ধেকের বেশি সংখ্যক নারীকে বাদদিয়ে সামগ্রিক উন্নয়ন পরিচালনা সম্ভব নয়। তাই তিনি নারীদের দক্ষতা বৃদ্ধির মাধ্যমে নানামুখী উন্নয়ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত করার মানসে বিভিন্ন কর্মসূচী হাতে নিয়েছিলেন। গ্রাম পর্যায় থেকে নারীদেরকে উঠিয়ে এনেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

এ মিশন সামনে নিয়েই বিভিন্ন প্রশিক্ষণ ও কারিগরি দক্ষতার মাধ্যমে নিজেদেরকে উপযুক্ত প্রমান করে দেশের সার্বিক উন্নয়নে বড় ধরনের অবদান রেখে চলেছে আমাদের নারী সমাজ। সোমবার রাঙামাটি চেম্বার অব কমার্সের আয়োজনে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত নারী উদ্যোক্তাদের বিউটিফিকেশন কীটবক্স বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু এসব কথা বলেন।

রাঙামাটি চেম্বারের সভাপতি বেলায়েত হোসেন ভূঁইয়া বেলাল এর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অথিতি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চেম্বারের সাবেক সভাপতি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য মাহবুবুর রহমান। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, চেম্বারের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ শাহ আলম, সহ-সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ, চেম্বারের পরিচালক এডভোকেট মামুনুর রশিদ মামুন। এতে আরো উপস্থিত ছিলেন পরিচালকবৃন্দদের মধ্যে মোঃ মনিরুজ্জামান মহসিন রানা, মোঃ নিজাম উদ্দিন, মোঃ আলী বাবর, উসাং মং, মোঃ ইউসুফ হারুন, মোঃ কামাল উদ্দিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও ব্যবসায়িদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই’য়ের মাধ্যমে রাঙামাটি চেম্বার কর্তৃপক্ষ রাঙামাটি জেলা শহরের ৪০জন নারী উদ্যোক্তাকে প্রশিক্ষণ প্রদান করে। এর মধ্যে ২০ জনকে সেলাই ও পোষাক বিষয়ে এবং ২০জনকে বিউটি পার্লার সম্পর্কিত উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। পাঁচদিনের এই প্রশিক্ষণ কিছুদিন অনুষ্ঠিত হয়। সোমবার বিকেলে প্রশিক্ষণ সম্পন্নকারীদের মধ্যে ২০জন নারীর হাতে রাঙামাটি চেম্বার অব কমার্সের হয়ে বিউটিফিকেশন কীটবক্স তুলে দেন প্রধান অতিথি এমপি ফিরোজা বেগম চিনু।

এসময় প্রধান অতিথি প্রশিক্ষণার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, এই ধরনের প্রশিক্ষন নিয়ে আপনারা প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান নিয়ে আপনারা নিজ নিজ গৃহে অর্জিত জ্ঞানের প্রয়োগের মাধ্যমে নিজেদেরকে আত্মকর্মশীলতার মাধ্যমে আর্থিক স্বচ্ছলতা আনতে পারলেই এই প্রশিক্ষণের সার্থকতা। এছাড়া এই ধরনের প্রশিক্ষণ কর্মসূচী ভবিষ্যতে আরো বেশি করে নেওয়ার আহবান জানিয়ে প্রধান অতিথি বলেন, আমাকে যদি চেম্বারের পক্ষ থেকে সুনির্দিষ্ট্য কর্মপরিকল্পনা সম্বলিত প্রস্তাবনা দেওয়া হয়, তাহলে আমি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করাসহ এই ব্যাপারে যা যা করনীয় তার সবই করবো।

পোস্ট করেন- শামীমুল আহসান- ঢাকা ব্যুরো অফিস, দৈনিক রাঙামাটি