সরকারি চাকুরি বঞ্চনার প্রতিবাদে কাপ্তাইয়ে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

376

॥ আলমগীর মানিক ॥ কারিগরি শিক্ষার আওতায় ডিপ্লোমা ইন কনস্ট্রাকশন ডিগ্রীধারী উপ-সহকারি প্রকৌশলীদের সরকারি চাকুরি থেকে বঞ্চিত করার প্রতিবাদে কাপ্তাইয়ে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে কয়েক’শ শিক্ষার্থী। মঙ্গলবার বেলা এগারোটায় কাপ্তাই সুইডিশ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট এর সামনেসহ কাপ্তাই-চট্টগ্রাম সড়কের উপর এই কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। প্রায় দু’ ঘন্টাব্যাপী চলা এই মানববন্ধন কর্মসূচিতে শিক্ষার্থীদের সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ জন প্রতিনিধিগণও অংশগ্রহণ করেন। মানববন্ধনে অংশগ্রহণকৃত শিক্ষার্থীরা জানায়, বর্তমান সরকার ২০০৫ সাল থেকে বিভিন্ন কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে যুগোপযোগি হিসেবে ডিপ্লোমা ইন কনষ্ট্রাকশন বিভাগ চালু করেছিল। এই বিভাগটি চালু হওয়ার বিপুল পরিমান শিক্ষিত যুবক উচ্চ শিক্ষার আশায় এই বিভাগে ভর্তি হয়। কিন্তু অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় এই বিভাগ থেকে উপসহকারি প্রকৌশলী হিসেবে পাশ করে বের হওয়ার পর দীর্ঘ বছর অতিবাহিত করেও সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে চাকুরি বঞ্চিত হয়ে আসছে তারা। দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এই নিয়মের ফলে ডিপ্লোমা ডিগ্রীধারী বেকার যুবকের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে করে হয়ে পিতা-মাতাসহ দেশের জন্য বোঝায় পরিণত হচ্ছে হাজারো বেকার যুবক।
মানববন্ধনে বক্তারা উল্লেখ করেন, প্রাকৃতিক দূর্যোগ মোকাবিলা ও দেশের অগ্রগতির লক্ষ্যে বাংলাদেশ সরকার ২০০৫ সাল থেকে বিভিন্ন কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে যুগোপযোগী হিসেবে ডিপ্লোমা ইন-কন্সট্রাকশন বিভাগ চালু করে বর্তমানে সারা বাংলাদেশে ৫টি সরকারী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট এ কন্সট্রাকশন টেকনোলজী চালু রয়েছে। ১ম শিফট ও ২য় শিফট মিলে বর্তমানে ৫টি সরকারী পলিটেকনিকে প্রায় ৩,০০০ জন ছাত্র-ছাত্রী অধ্যায়নরত অবস্থায় আছে। প্রতি বছর ৬০০ জন ছাত্র-ছাত্রী কন্সট্রাকশন টেকনোলজি থেকে পাশ করে বের হয়। কিন্তু এই বিশাল সংখ্যক যোগ্য ছাত্র-ছাত্রী কোন সরকারী চাকুরীতে সুযোগ না পাওয়ায় হতাশাগ্রস্থ ও বেকার হয়ে পড়ছে, এবং দেশের সরকারী নির্মাণ প্রতিষ্ঠান গুলো নির্মাণ বিশেষজ্ঞদের (ডিপ্লোমা ইন-কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং) সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।
বক্তারা আরো বলেন, সিভিল বিভাগের সিলেবাস থেকে কন্সট্রাকশন বিভাগের নির্মান বিষয় ও সিলেবাস আর বেশি বিস্তৃত হওয়া সত্ত্বেও আমরা সরকারী প্রতিষ্ঠানের নিয়োগের সুবিধা থেকে বঞ্চিত। ২০০৫ ইং হইতে এই পর্যন্ত হাজার হাজার ছাত্র-ছাত্রী ডিপ্লোমা ইন-কন্সট্রাকশন ইনঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী অর্জন করে চাকরী নিয়োগের সুযোগ না থাকায় হতাশ ও বেকার হয়ে পড়ছে। বর্তমান প্রেক্ষাপটে দেশের এ উন্নয়নের অগ্রগতীর মধ্যে দিয়ে কন্সট্রাকশন ইন-ডিপ্লোমা বিভাগকে বাঁচায় রাখতে সেটাই হতে পারে উন্নয়নের আরেকটি মডেল। কন্সাট্রাকশন ইন-ডিপ্লোমা বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীদের ঐকান্তিক প্রত্যাশার মধ্যে দিয়ে হৃদয় নিংরানো এ দাবীকে বাস্তবায়নের জন্য অবিলম্বে সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবে এবং এর ফলে বাংলাদেশের ডিপ্লোমা ইন-কন্সট্রাকশন ডিগ্রীধারীগণ (উপ-সহকারী প্রকৌশলী) হিসাবে দেশ মাতৃকা সেবায় ভূমিকা রাখতে পারবে এবং সেই সাথে দেশ যৌক্তিক ও ফল¯্রুত পরিণতির দিকে যাবে বলে বক্তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
এরআগে কয়েকশো শিক্ষার্থী সুইডিশ পলিটেকনিক এর মূল ফটক থেকে একটি মিছিল নিয়ে উপজেলার প্রধান সড়ক প্রদিক্ষণ করে কাপ্তাই-চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়কের দু’পাশে মানববন্ধনে মিলিত। মানব বন্ধনে ডিপ্লোমা ডিগ্রিধারী সাবেক শিক্ষার্থী মুহাম্মদ ওসমানগণির সঞ্চালনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কাপ্তাই উপজেলা পরিষদেরর চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান নুর নাহার, কাপ্তাই ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ, কাপ্তাই পলি টেকনিক ইন্সটিটিউট এর অধ্যক্ষ আব্দুল মালেক প্রমুখ।